kalerkantho

বুধবার । ২ আষাঢ় ১৪২৮। ১৬ জুন ২০২১। ৪ জিলকদ ১৪৪২

ভিক্ষুকের জমানো টাকায় প্রতিবেশীর কুনজর, উদ্ধার করল পুলিশ

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি   

২০ মে, ২০২১ ১৮:০৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভিক্ষুকের জমানো টাকায় প্রতিবেশীর কুনজর, উদ্ধার করল পুলিশ

যশোরের বেনাপোল পৌরসভার ২ নম্বর দুর্গাপুর ওয়ার্ডে বাস করেন ৬০ বছরের বয়সী ফাতেমা বেগম নামে স্বামীহীন এক ভিক্ষুক। জীবিকার তাগিদে মানুষের দ্বারে দ্বারে ভিক্ষাবৃত্তি করে জীবিকা নির্বাহ করেন তিনি। ১০, ২০, ৫০, ১০০ টাকা করে জমিয়ে একটি ভবিষ্যত তহবিল করেন শেষ বয়সে ভালো থাকার জন্য। কিন্তু ভাগ্যের বিড়ম্বনায় তার এই জমানো টাকায় নজর পড়ে এক প্রতিবেশীর।

আর কৌশলে প্রতিবেশী ধার হিসাবে ফাতেমা বেগমের কাছ থেকে নেন ৫০ হাজার টাকা। কিছুদিন পর তিনি যখন টাকাগুলো ফেরত চান তখন প্রতিবেশী নানা অজুহাতে তাকে ঘুরাতে থাকে। একপর্যায়ে টাকাগুলো না দেওয়ার জন্য নানা রকম ছলচাতুরি শুরু করে। ফাতেমা বেগম টাকার জন্য তার পেছনে ঘুরতে ঘুরতে দিশেহারা হয়ে পড়েন। টাকা ফেরত না পেয়ে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের কাছে লিখিত আকারে অভিযোগ করেন তিনি। অভিযোগের ভিত্তিতে প্রতিবেশীর নিকট থেকে নগদ ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।

বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের এসআই সোহেল রানা টাকা উদ্ধার করে বৃহস্পতিবার সকালে ভিক্ষুক ফাতেমা বেগমকে বুঝিয়ে দেন। টাকা ফেরত পেয়ে খুশিতে কেঁদে ফেললেন ভিক্ষুক ফাতেমা বেগম।

বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই সোহেল রানা জানান, পোর্ট থানার ওসি মামুন খানের নির্দেশে ভিক্ষুকের অভিযোগটি তদন্তের জন্য আমাকে দেন। আমি গুরুত্বের সাথে তদন্ত করে ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করি। আজ সকালে তার নিকট টাকা হস্তান্তর করেছি।



সাতদিনের সেরা