kalerkantho

শনিবার । ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১২ জুন ২০২১। ৩০ শাওয়াল ১৪৪২

ভয়ে গ্রামছাড়া ৫ পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৯ মে, ২০২১ ১৯:০৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভয়ে গ্রামছাড়া ৫ পরিবার

ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার জাহাপুর ইউনিয়নের মুরারদিয়া গ্রামে সন্ত্রাসী হামলার ভয়ে বাড়িতে ফিরতে পারছে না পাঁচটি পরিবারের নারী ও শিশুসহ প্রায় ২৮ সদস্য। সম্প্রতি দুর্বৃত্তরা তাদের বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে বাড়িছাড়া করে গবাদি পশু ও কৃষিপণ্যসহ মালামাল লুট করে নেয়। আজ বুধবার সকালে আপস-মীমাংসার নামে সভা ডেকে ফের তাদের ভয়ভীতি দেখানো হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, বাড়ির উঠানে ধান শুকানোকে কেন্দ্র করে গত রবিবার বিকেলে মুরারদিয়া গ্রামের রইস মেল্লা ও তাঁর আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে হামলা করে প্রতিপক্ষ রউফ মাতুব্বরের লোকেরা। তারা পরিবারের লোকদের ঘরের মধ্যে আটকে এসব পরিবারের ১১টি গরু ও একটি মোটরসাইকেলসহ, স্বর্ণালংকার, পেঁয়াজ, পেঁয়াজের দানা, ধান, চাল ও গৃহস্থালি মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এর ছয় মাস আগেও একইভাবে তারা হামলা ও লুট করে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা। 

এঘটনায় লিটন মোল্লা বাদী হয়ে মধুখালী থানায় দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা করেন। মামলায় রউফ মাতুব্বর ও সোহরাব মাতুব্বর সহ ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৫/৬ জনকে আসামি করা হয়।

পুলিশ মামলার প্রধান আসামি রউফ মাতুব্বরকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। তবে লুট হওয়া গবাদি পশু ও মালামাল উদ্ধার হয়নি।

এদিকে, আজ বুধবার সকালে স্থানীয় এক রাজনৈতিক নেতার নেতৃত্বে মুরারদিয়া উত্তরপাড়া গাবতলা মোড়ে একটি সভা ডাকা হয়। এসময় মামলার একজন আসামিসহ রউফ মাতুব্বরের লোকেরা সেখানে উপস্থিত ছিল। তারা উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করে এবং গ্রামছাড়া এসব পরিবারকে ফিরলে ফের হামলার হুমকি দেয় বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

মধুখালী থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, গত রবিরের ওই ঘটনার পর পুলিশ ওই এলাকায় কড়া নজরদারি রেখেছে। সেখানে কেউ কাউকে বাড়ি ফিরতে বাধা দিচ্ছে এমন কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। মামলার আসামি নয়, এমন কারো বাড়ি ফিরতে বাধা নেই।



সাতদিনের সেরা