kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

বুড়িচংয়ে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

ব্রাহ্মণপাড়া-বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

১৮ মে, ২০২১ ২১:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বুড়িচংয়ে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

কুমিল্লার বুড়িচংয়ে রিমা আক্তার (২৫) নামে এক সন্তানের জননীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৮ মে) বিকেলে বুড়িচং উপজেলার জগতপুর গ্রামের মোল্লা বাড়িতে বসতঘরের খাটের ওপর থেকে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়। 

নিহতের স্বজনদের অভিযোগে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামী রমজান আলী (৩০) রিমাকে হত্যার করে পালিয়ে যান। অভিযুক্ত রমজান আলী ওই বাড়ির মৃত লোকমান হোসেনের ছেলে। 

গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বুড়িচং থানার ওসি মোজাম্মেল হক বলেন, মঙ্গলবার দুপুর দেড়টা থেকে ৩টার মধ্যে হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে। ঘটনার পর থেকে গৃহবধূর স্বামী পালাতক রয়েছে।

জানা যায়, কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার সদর ইউনিয়নের জগতপুর গ্রামের মোল্লা বাড়ির মৃত লোকমান হোসেনের ছেলে রমজান আলী (৩০) ১০ বছর পূর্বে জেলার আদর্শ সদর উপজেলার কাপ্তান বাজার এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে রিমা আক্তারকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর তাদের সংসারে একটি মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়।

স্থানীয়রা জানান, ঈদের ছুটিতে কিছুদিন পূর্বে বাড়িতে আসেন রমজান আলী। সম্প্রতি তাদের দাম্পত্য জীবনে কলহের সৃষ্টি হয়। মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে রমজান আলীর মা পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে কোটবাড়ী এলাকায় ঘুরতে যান। বাড়িতে তখন রমজান ও তার স্ত্রী রিমা আক্তার ছিলেন। বিকেল ৩টার দিকে তাদের এক নিকট আত্মীয় রমজানের বাড়িতে যান। এসময় ঘরের দরজা খোলা দেখে ভেতরে গিয়ে বিছানার ওপর রিমা আক্তারের গলাকাটা দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে খবর পেয়ে বাড়ির লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। সংবাদ পেয়ে বিকাল ৪টার দিকে বুড়িচং থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে। 

বুড়িচং থানার ওসি মোজাম্মেল হক বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনও মামলা হয়নি। গৃহবধূর পরিবারের সদস্য অভিযোগ করতে থানায় আসছেন। মামলার পর স্বামীসহ হত্যাকাণ্ডে সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে।



সাতদিনের সেরা