kalerkantho

শুক্রবার । ১১ আষাঢ় ১৪২৮। ২৫ জুন ২০২১। ১৩ জিলকদ ১৪৪২

ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী, কিশোরের বিরুদ্ধে মামলা

রামগড় (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি    

১৮ মে, ২০২১ ২০:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী, কিশোরের বিরুদ্ধে মামলা

এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় রামগড় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। খাগড়াছড়ির জেলার রামগড় উপজেলার ৫ নম্বর পৌর ওয়ার্ডের চৌধুরী পাড়া এলাকার মো. রহিম (১৫) নামের এক কিশোরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের শিকার কিশোরী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। 

আজ মঙ্গলবার (১৮ মে) ওই কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণে অভিযুক্ত মো. রহিম একই এলাকার নুরু মিয়ার পুত্র।

পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী অভিযোগ করে বলে, বিবাদী মো. রহিমের ছোট বোন আঁখির সঙ্গে বন্ধুত্বের সুবাধে তাদের বাড়িতে প্রায়ই যাওয়া-আসা হতো। প্রতিদিনের মতো ২ ডিসেম্বর ২০২০ সালে বিকাল আনুমানিক ৩টায় বান্ধবীর খোঁজে তাদের বাড়িতে যাই। বান্ধবী বাড়িতে না থাকার পরও রহিম মিথ্যা কথা বলে যে, তার বোন আঁখি বাড়ির ভেতরে রয়েছে।

কিশোরী জানায়, বান্ধবীর বাড়ির ভেতরে রয়েছে শুনে বাদী ঘরে প্রবেশ করে। সাথে সাথে বিবাদী রহিম অসৎ উদ্দেশ্যে দরজা বন্ধ করে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ধর্ষণের কথা কাউকে না বলতে ভয়ভীতি দেখায়। 

কিশোরী বলে, আমার মা ও বোন বিভিন্ন সময়ে নানার বাড়িতে যাওয়া আসার সুবাধে সুযোগ বুঝে ঘর খালি থাকায় ১৫ এপ্রিল ২০২১ হতে বিভিন্ন সময়ে আবার আমাকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। পরে শরীর খারাপ হওয়ায় চিকিৎসকের কাছে গিয়ে জানতে পারি ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। ডাক্তারি রিপোর্টসহ রামগড় থানায় রহিমের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। 

রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সামসুজ্জামান বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে রামগড় থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। ওই অন্তঃসত্ত্বা বাদীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।



সাতদিনের সেরা