kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

নেত্রকোনায় বজ্রপাতে আটজনের মৃত্যু

নেত্রকোনা, মদন ও কেন্দুয়া প্রতিনিধি   

১৮ মে, ২০২১ ১৭:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নেত্রকোনায় বজ্রপাতে আটজনের মৃত্যু

নেত্রকোনার কেন্দুয়া, মদন ও খালিয়াজুরী ও পূর্বধলায়য় বজ্রপাতে আটজন কৃষক ও জেলে মারা গেছেন। আজ মঙ্গলবার পৌনে ৩টার দিকে পৃথক তিন উপজেলায় এঘটনা ঘটে। এতে আহত হয়েছেন আরো ৯ জন।

মারা যাওয়া কৃষকেরা হলেন কেন্দুয়া উপজেলার পাইকুড়া ইউনিয়নের বৈরাটী গ্রামের মো. বায়েজিদ মিয়া (৪২) ও কান্দিউড়া ইউনিয়নের কুণ্ডলী গ্রামের মো. ফজলুর রহমান (৫৫)। এবং খালিয়াজুরী উপজেলার মেন্দিপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের খেলু ফকিরের ছেলে কৃষক অছেক মিয়া (৩২) একই গ্রামের আমির সরকারের ছেলে কৃষক বিপুল মিয়া (২৮) ও বাতুয়াইল গ্রামের মঞ্জুরুল হকের ছেলে মনির ছেলে (২৮ ) ও মদনে হাফেজ মোহাম্মদ শরীফ (১৮), মাওলানা আতাবুর (২১) ও পূর্বধলায় এক শিশু (১২)।

জানা গেছে, বজ্রপাতে মঙ্গলবার নেত্রকোনার মদনে হাফেজ মোহাম্মদ শরীফ (১৮) ও মাওলানা আতাবুর (২১) নামের দুই যুবক নিহত হয়েছে। এতে আরো আহত হন চারজন। নিহত শরীফ উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের পশ্চিম ফতেপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদিরের ছেলে। আতাবুর এইক গ্রামের মৃত আব্দুল মন্নাফের ছেলে।

এ ছাড়া বজ্রপাতে পূর্বধলায় উপজেলার দলামূলগাঁও ইউনিয়নের টাকলি গ্রামের ইছাক মিয়ার ছেলে জুনাইদ (১২) নিহত হয়েছে। 

বজ্রপাতে আতাবুর ও শরীফের মৃত্যুর সংবাদটি নিশ্চিত করেছেন মদন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস আলম বলেন, এ ব্যাপারে মদন থানায় অপমৃত্যু মামলা হবে।

এ সময় বজ্রপাতে পশ্চিম ফতেপুর গ্রামের রবিন (১৫) রুমান (১৮) ও তিয়শ্রী ইউনিয়নের বাস্তা গ্রামের ভিক্ষু মিয়ার স্ত্রী কণা (৪৫) ও চন্দন মিয়ার স্ত্রী সুরমা আক্তার আহত হয়। আহতদেরকে মদন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এছাড়া নেত্রকোনা পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুন্সি ও কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজি শাহনেওয়াজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।



সাতদিনের সেরা