kalerkantho

বুধবার । ৯ আষাঢ় ১৪২৮। ২৩ জুন ২০২১। ১১ জিলকদ ১৪৪২

বিরোধের জেরে সাত পরিবারের রাস্তা বন্ধ

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   

১৭ মে, ২০২১ ২০:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিরোধের জেরে সাত পরিবারের রাস্তা বন্ধ

সকালে পটুয়াখালীর গলাচিপা পৌরসভার রাস্তায় টিনের বেড়া দিয়ে সাত পরিবারের চলাচলের পথ বন্ধ করে দিয়েছে দুষ্কৃতকারীরা। ঘটনাটি ঘটেছে পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মুজিবনগর এলাকায়। রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ায় পৌরসভার সাত পরিবারের মানুষ ঘরবন্দি হয়ে পড়েছে।

এদিকে জমির মালিক রিপন কর্মকারের স্ত্রী শিলা কর্মকার জানিয়েছেন, রাস্তা বন্ধ করা হয়নি। জমির সীমানা দেওয়া হচ্ছে। এদিকে বিষয়টি ব্যক্তিগত বিরোধের জের বলে জানিয়েছেন গলাচিপা থানার ওসি এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম। তবে বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছেন পৌর মেয়র আহসানুল হক তুহিন।

সূত্র জানায়, গলাচিপা পৌরসভার মুজিবনগর রোড এলাকার সাবেক সিনিয়র শিক্ষক সুলতান আহম্মেদের বাসার পূর্ব পাশের রাস্তা দিয়ে মানুষ দীর্ঘদিন চলাচল করে আসছে। এর আগে এখানে একটি রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। ব্যক্তিগত বিরোধের জের ধরে গত শনিবার রিপন কর্মকার তার সীমানা বন্ধ করে দেন। এতে প্রতিবেশী সাত পরিবারের চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যায়। অবরুদ্ধ পরিবারগুলো পক্ষে মো. মজিবুর রহমান দাবি জানিয়েছেন পথটি স্বাভাবিক চলাচলের জন্য অবমুক্ত করে দেওয়ার জন্য বিভিন্ন মহলের কাছে দাবি জানিয়েছেন।

এবিষয়ে রিপন কর্মকারের কাছে মোবাইলে জানতে চাইলে তার স্ত্রী শিলা কর্মকার বলেন, 'রাস্তায় বেড়া আমরা দিইনি। আমরা তিন বছর আগে এখানে জায়গা কিনেছি। জায়গাটি পরিত্যক্ত থাকায় যে যার মতো ব্যবহার করেছে। আর যারা অভিযোগ করেছে তারা মূলত পৌরসভার বাসিন্দা নয়। তাদের জন্য ইউনিয়ন পরিষদ আলাদাভাবে রাস্তা করে দিলেও আমার বাড়ির ওপর দিয়ে দু-একজন ব্যক্তিগতভাবে হাঁটা-চলা করত।

এবিষয়ে গলাচিপা পৌর মেয়র আহসানুল হক তুহিন বলেন, 'ঘটনাটি জানার পর স্থানীয় কাউন্সিলরকে জানিয়েছি। আমরা দুই পক্ষের লোক ডেকেছি। বিষয়টি সুষ্ঠু সমাধান হবে বলে আশা করছি'।

গলাচিপা থানার ওসি এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, 'ঘটনাটি শোনার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে তদন্ত করা হয়েছে। এটি ব্যক্তিগত বিরোধের জের। মেয়র সাহেব দায়িত্ব নিয়েছেন। তিনি এটির সমাধান দেবেন বলে জানিয়েছেন'।



সাতদিনের সেরা