kalerkantho

মঙ্গলবার । ১ আষাঢ় ১৪২৮। ১৫ জুন ২০২১। ৩ জিলকদ ১৪৪২

পদ্মায় ডুবে যাওয়া মাইক্রোবাসটির চালকের সন্ধান মেলেনি

গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি   

১২ মে, ২০২১ ১৮:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পদ্মায় ডুবে যাওয়া মাইক্রোবাসটির চালকের সন্ধান মেলেনি

নিখোঁজের ২৭ পরেও রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে পদ্মায় ডুবে যাওয়া মাইক্রোবাসের চালক মোহাম্মদ মারুফ হোসেনের কোনো সন্ধান মেলেনি। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড়ে উপজেলার দৌলতদিয়া ৫নম্বর ফেরিঘাটে তার ছিঁড়ে ঘাট থেকে পন্টুন বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এ সময় পন্টুন থেকে ছিঁটকে পড়ে পদ্মা নদীতে ডুবে যায় ঢাকামুখী একটি মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো-চ ১৪-২৬০৮)। তখন গাড়িটির ভিতরে থাকা চালক মারুফ পানিতে ডুবে নিখোঁজ হন। পরে দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ডুবে যাওয়া মাইক্রোবাসটিকে উদ্ধার করা হয়।

নিখাঁজ চালকের সন্ধান পেতে আজ বুধবার সকাল থেকে পদ্মা নদীতে ফের অভিযানে নামেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চালক মারুফের সন্ধান পাওয়া যায়নি।

জানা গেছে, মোহাম্মদ মারুফ হোসেনের গ্রামের বাড়ি সিলেট সদর উপজেলা এলাকায়। ঢাকার হাতিরঝিলে একটি বাসায় তিনি তাঁর পরিবারসহ বসবাস করতেন। ঢাকার কেরানীগঞ্জের জনৈক মাকসুদুর রহমানের নতুন কেনা মাইক্রোবাসের (ঢাকা মেট্রো-চ ১৪-২৬০৮) চালকের কাজ করতেন তিনি। মাইক্রোবাসের মালিকের শ্যালক সৌদি প্রবাসী মিজানুর রহমানকে ঢাকা থেকে চুয়াডাঙ্গায় নামিয়ে চালক মারুফ গতকাল মঙ্গলবার মাইক্রোবাসটি চালিয়ে ঢাকায় ফিরছিলেন। পথে গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ঘাটে পৌঁছে ফেরিতে ওঠার সময় ঝড়ের কবলে পড়ে ঘাট পন্টুনের তার ছিড়ে ঘাট থেকে পন্টুনটি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ সময় পন্টুন থেকে ছিঁটকে পড়ে মাইক্রোবাসটি পদ্মা নদীতে ডুবে যায়। তখন থেকে গাড়িটির চালক মারুফ নিখোঁজ রয়েছেন।

গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের কর্মকর্তা গোলাম সরোয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে কালের কণ্ঠকে বলেন, পদ্মায় ডুবে যাওয়ার সময় ওই মাইক্রোবাসটির ভিতরে চলক ছড়া অন্য কোনো আরোহী ছিলেন না বলে আমাদের ধারণা। নিখোঁজ চালক মারুফ হোসেনের সন্ধান পেতে ঘটনাস্থলসহ নদীর ভাটিপথ এলাকায় উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’



সাতদিনের সেরা