kalerkantho

শনিবার । ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১২ জুন ২০২১। ৩০ শাওয়াল ১৪৪২

ঈদযাত্রা পরিণত হলো শোকযাত্রায়

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি   

১২ মে, ২০২১ ১৭:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঈদযাত্রা পরিণত হলো শোকযাত্রায়

শিমুলিয়া থেকে বাংলাবাজার যাত্রাপথে দুই ফেরিতে প্রচণ্ড গরমে হুড়োহুড়িতে এ পর্যন্ত পাঁচজন যাত্রী মারা গেছে। শতাধিক যাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। নিহতদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে।

জানা যায়, বুধবার সকাল থেকেই শিমুলিয়া ঘাট হয়ে দক্ষিণাঞ্চলের যাত্রীদের ঢল নামে। প্রতিটি ফেরিই যাত্রীতে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে পার হচ্ছিল। পরিস্থিতি সামাল দিতে সকাল থেকে বাংলাবাজার ঘাট থেকে খালি ফেরি নিয়ে নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করা হয়। দুপুরে রো রো ফেরি এনায়েতপুরী বাংলাবাজার ঘাট থেকে ১৫টি যানবাহন নিয়ে শিমুলিয়া ঘাটে পৌঁছলে ফেরিটি যানবাহন ঘাটে নামানোর আগেই শিমুলিয়া ঘাট থেকে প্রায় পাঁচ হাজার যাত্রী ফেরিতে উঠতে হুমড়ি খেয়ে পড়ে। প্রায় তিন ঘণ্টা অপেক্ষার পর যাত্রীদের চাপে লোড করা যানবাহন শিমুলিয়া ঘাটে না নামিয়েই যাত্রী বোঝাই করে ফেরিটি আবার বাংলাবাজারের উদ্দেশে ছেড়ে আসে।

ফেরির মধ্যে যাত্রীদের হুড়োহুড়ি ও প্রচণ্ড গরমে শতাধিক যাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে। ফেরিটি বাংলাবাজার ৩ নম্বর ঘাটে আসার সঙ্গে সঙ্গে শতাধিক যাত্রী নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে গরম থেকে কোনো মতে বাঁচার চেষ্টা করে। এ সময় ফেরির মাঝে হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা ঘটে। এ অবস্থায় ফেরিটি বাংলাবাজার ঘাটে পৌঁছলে অসুস্থ যাত্রীদের মধ্যে এক নারীসহ চারজনের মৃত্যু হয়। অসুস্থ শতাধিক যাত্রীর মধ্যে অন্তত ১০ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করেন। এর আগে রো রো ফেরি শাহ পরানে আনসুর মাদবর নামের এক কিশোর মারা যায়।

শিবচর থানার ওসি মো. মিরাজ হোসেন বলেন, ফেরি এনায়েরপুরীতে চার যাত্রী ও ফেরি শাহ পরানে এক যাত্রী মৃত্যুবরণ করে। প্রচণ্ড গরমে হিটস্ট্রোকে এসব যাত্রী মারা যায় বলে ধারণ করা হচ্ছে।



সাতদিনের সেরা