kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

টাকার অভাবে চিকিৎসা হচ্ছে না চম্পার

আবদুল কাদির, পার্বতীপুর (দিনাজপুর)    

১০ মে, ২০২১ ১৬:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টাকার অভাবে চিকিৎসা হচ্ছে না চম্পার

মধ্য বয়সী এক নারী মোছাঃ চম্পা বেগম (৪৮) স্বামী মৃতঃ মোহাম্মদ আলী আকবর। চার পুত্রের মধ্যে একজন মারা গেছে। দু’জন বিয়ে করে অন্যত্র সংসার করছে। তার ছোট ছেলে স্থানীয় একটি কলেজে আইএ পরীক্ষার্থী। চম্পা বেগম তার স্বামীর মৃত্যুতে চোখে অন্ধকার দেখছেন। এর ওপর দুরারোগ্য চর্মরোগসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। 

প্রতিদিনের ঔষধ কিনতে পারছেন না। এ অবস্থায় তিনি সমাজের বিত্তবান, হৃদয়বান ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছে সাহায্য চেয়েছেন।

চম্পা বেগমের নিজসম্ব বাড়ি ছিল পার্বতীপুর শহরের রোস্তম নগর মহল্লায়। ধার দেনা আর ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে মাথা গোঁজার ঠাঁইটুকু বিক্রি করতে হয়েছে। বর্তমানে তিনি একই মহল্লায় ভাড়া বাসায় ছোট ছেলেকে নিয়ে বসবাস করছেন। 

চম্পা বেগম জানান, তাঁর স্বামী আলী আকবর ছিলেন অত্যন্ত কর্মঠ মানুষ। তার শ্রমে ঘামে সংসার চলতো। গত জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময় তার হার্টের অসুখ ধরা পড়ে। রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২০ জানুয়ারি পরবর্তী চিকিৎসার জন্য একটি ব্যবস্থাপত্র দিয়ে ছাড়পত্র প্রদান করা হয়। কিন্তু অর্থাভাবে এক প্রকার বিনা চিকিৎসায় গত ২৬ জানুয়ারী তার মৃত্যু হয়। 

চম্পা জানায়, সে নিজেও চর্মরোগ ও শ্বাস কষ্টে ভূগছেন বহুদিন থেকে। অর্থাভাবে দু’বেলা খেতে পারছেন না। এর ওপর সুচিকিৎসার জন্য টাকা কোথায় পাবেন। চম্পা বেগম রংপুর মেডিক্যাল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ মোঃ রাজু আহম্মদের চিকিৎসা নিচ্ছেন। কিন্তু টাকার জন্য প্রেসক্রিপশনে দেওয়া চিকিৎসকের ঔষধ কিনতে পারছেন না।  

চম্পার জাতীয় পরিচয়পত্র নং ১৫১০১০১১৫৪০৩২। 

সহায়তার জন্য, বিকাশ নম্বর- ০১৭৪৩০৯৭৩১৯, ব্যাংক হিসাব নং ১৫১০১০১১৫৪০৩২, পূবালী ব্যাংক, পার্বতীপুর শাখা, দিনাজপুর। 



সাতদিনের সেরা