kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

দুজনই ময়নার পরকীয়া প্রেমিক, আলমগীরকে একাই খুন করে ইস্রাফিল!

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

৮ মে, ২০২১ ২০:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুজনই ময়নার পরকীয়া প্রেমিক, আলমগীরকে একাই খুন করে ইস্রাফিল!

প্রতীকী ছবি।

‘আমার গ্রামের জলিলের স্ত্রী ময়নার সঙ্গে আমার পারকীয়ার সম্পর্ক ছিলো। ময়নার সঙ্গে আলমগীরও গোপনে পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে তোলে। এ নিয়ে বিরোধ বাধে। এরই জের ধরে আমি একাই আলমগীরকে হত্যা করেছি’। পুলিশের সামনে এমন স্বীকারোক্তি প্রদান করেছে অভিযুক্ত ইস্রাফিল হোসেন। 

গত শুক্রবার ভোরে খুন হওয়া সাতক্ষীরা সদরের বকচরা গ্রামের দিনমজুর আলমগীর হোসেনের এক মাত্র হত্যাকারী এই ইস্রাফিল হোসেন। আজ শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা সদর থানায় প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে এসব তথ্য তুলে ধরেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সজীব খান। 

তিনি বলেন, এ ঘটনায় ইস্রাফিলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পশ্চিম বকচরা গ্রামের আলমগীর হোসেন একজন দিনমজুর। আলমগীরের সঙ্গে পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল বালিয়াডাঙা গ্রামের ইটভাটা শ্রমিক আব্দুল জলিলের স্ত্রী ময়না খাতুনের। একইসঙ্গে ওই নারীর সঙ্গে দ্বিতীয় পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে ইস্রাফিল হোসেনও। এ নিয়ে তাদের পারিবারিক বিরোধও হয়। স্থানীয়ভাবে সালিস বিচারও হয়। বন্ধুত্বের সম্পর্ক থাকলেও আলমগীরের সঙ্গে ইস্রাফিলের দূরত্ব সৃষ্টি হয় ময়নাকে নিয়ে। এরই জেরে ইস্রাফিল গত বৃহস্পতিবার রাতে তাকে বাড়ি থেকে কৌশলে ডেকে এনে বকচরা বিলের মধ্যে একটি ঘেরে ডিশলাইনের তার গলায় পেঁচিয়ে আলমগীরকে হত্যা করে।

শুক্রবার সকালে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। ইস্রাফিলের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ আলমগীরের ব্যবহৃত টর্চলাইট ও মোবাইলও জব্দ করেছে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে আরো উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শামসুজ্জামান শামস এবং সদর থানার ওসি দেলোয়ার হোসেনসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা।



সাতদিনের সেরা