kalerkantho

শুক্রবার । ৪ আষাঢ় ১৪২৮। ১৮ জুন ২০২১। ৬ জিলকদ ১৪৪২

পত্নীতলায় বাঁশ কাটা নিয়ে সংঘর্ষ, যুবক নিহত

ধামইরহাট-পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

৬ মে, ২০২১ ২০:০৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পত্নীতলায় বাঁশ কাটা নিয়ে সংঘর্ষ, যুবক নিহত

নওগাঁর পত্নীতলায় বাঁশ কাটাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে রাজু (২১) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত রাজুর পিতা আফজাল হোসেনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার এ ঘটনা ঘটে। নিহতের মামা মো. এনামুল ইসলাম আজগর বাদী হয়ে ৮ জনকে আসামি করে পত্নীতলা থানায় মামলা দায়ের করেছে।

পত্নীতলা থানায় এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় ডাসনগর গ্রামের জানা মন্ডলের পুত্র আফজাল হোসেন (৪৫) তার বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়া বৈদ্যুতিক তারের উপর পড়ে যাওয়া বাঁশ কাটতে যায়। এ সময় ডাসনগর দিঘীর পাড় গ্রামের মো.আব্দুস সালামের সাথে বাঁশ কাটা কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটিতে লিপ্ত হয়। এ সময় আব্দুস সালামের সাথে তার ছেলেসহ আরো ৫-৬ জন এসে যোগ দেয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে আফজাল হোসেন ও তার ছেলে রাজু হোসেন মারাত্মক জখম হয়। স্বামী ও ছেলেকে রক্ষার জন্য বেনজু আরা এগিয়ে আসলে তাকেও প্রতিপক্ষের লোকজন বেধড়ক মারপিট করে। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মাথায় গুরুতর জখম অবস্থায় আফজাল হোসেন ও রাজু কে স্থানীয়রা উদ্ধার করে পত্নীতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। আহতদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ার তাৎক্ষণিক বাবা ও ছেলেকে চিকিৎসক রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। বুধবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছেলে রাজু হোসেন মারা যায়। রাজশাহী মেডিকেলে চিকিৎসাধীন আফজাল হোসেনেও অবস্থা আশংকাজনক। নিহত রাজুর মামা মো. এনামুল হক আজগর বাদী হয়ে ৮ জনকে আসামি করে পত্নীতলা থানায় মামলা দায়ের করেন। রাতেই অভিযান চালিয়ে পুলিশ চারজনকে আটক করে।

এ বিষয়ে পত্নীতলা থানার ওসি মো.শামসুল আলম শাহ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত রাজুর মামার দায়েরকৃত মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ রাতেই ৪ জনকে আটক করে কোর্ট হাজতে প্রেরণ করেছে। আটককৃতরা হলো ডাসনগর গ্রামের মুকুল হোসেন, মামুন হোসেন, ছয়ফুল ইসলামের স্ত্রী গোপালী বেগম ও আব্দুস সালামের স্ত্রী গকুল বেগম। অন্য আসামিদের ধরার চেষ্টা চলছে। 



সাতদিনের সেরা