kalerkantho

শুক্রবার । ৪ আষাঢ় ১৪২৮। ১৮ জুন ২০২১। ৬ জিলকদ ১৪৪২

বাড়ি ছাড়া করল স্বজনরা, অসহায় বৃদ্ধার আশ্রয় হলো প্রতিবেশীর বাড়িতে

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

৬ মে, ২০২১ ১৯:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাড়ি ছাড়া করল স্বজনরা, অসহায় বৃদ্ধার আশ্রয় হলো প্রতিবেশীর বাড়িতে

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুরে সাবিত্রী দত্ত (৬৫) নামে অসহায় এক বিধবা বৃদ্ধাকে মারপিট করে বাড়ি ছাড়া করেছে তার স্বজনরা। বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছেন সাবিত্রী।

সাবিত্রী ওই গ্রামের মৃত অতুল দত্তের সহধর্মিনী। যদিও বাবা মারা যাবার পর ওই বৃদ্ধার দুটি ছেলেই হয়েছেন নিরুদ্দেশ। ফলে এ বাড়ি ও বাড়ি থেকে চেয়ে চিন্তে কোনো রকমে জীবিকা নির্বাহ করছেন।

সাবিত্রী জানান, প্রায় ১৫ বছর আগে তার স্বামী মারা গেছে। স্বামীর মৃত্যুর পর ছেলে অপু দত্ত ও সনু দত্ত নিরুদ্দেশ হয়। এরপর থেকে স্বামীর ভিটায় থাকা ঘরে বসবাস করে আসছেন তিনি। যদিও ছেলেরা না থাকা তার সরিক রবি দত্ত ও মনোতোষ দত্ত এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা তাকে নানা রকম অত্যাচার শুরু করে। এক পর্যায়ে তিনি প্রতিবেশীর বাড়িতে আশ্রয় নেন এবং মাঝে মধ্যে বাড়িতেও থাকেন। খাওয়া-দাওয়া করেন তিনি চেয়ে চিন্তে। এরই মাঝে বৃহস্পতিবার সকালে ওই সব সরিকরা তাকে উচ্ছেদ করতে তা উপর হামলা, মারপিট এবং স্বামীর নিবাস ঘরটি ভাঙচুর করে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ বহরপুর ইউনিয়ন শাখার সভাপতি রোমানা কবির জানান, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে যান এবং সাবিত্রীকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদান এবং নিরাপদ দূরবর্তী এলাকায় তাকে রেখে আসেন। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান ও বিচার দাবি করেন। তিনি আরো বলেন, একজন অসহায় বৃদ্ধাকে এভাবে মারপিট করে স্বামীর ভিটা থেকে বের করে দেওয়াটা অন্যায়।

সরিক রবি দত্তের ছেলে রাজু দত্ত জানান, সাবিত্রী ওই বাড়ীর মধ্যে জমি পাবেন। তবে যেখানে তাদের ঘর রয়েছে সেই জায়গাটা তাদের। তবে তারা সাবিত্রীকে মারপিট করেননি এবং তার ঘরও ভাঙেননি। ঘর বাতাসে পরে গেছে।

বালিয়াকান্দি থানার ওসি তারিকুজ্জামান জানান, বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত ওই ঘটনায় থানায় কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।



সাতদিনের সেরা