kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

পারিবারিক কবরস্থানের জায়গা দখল করে গরুর খামার স্থাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

৪ মে, ২০২১ ২০:৫৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পারিবারিক কবরস্থানের জায়গা দখল করে গরুর খামার স্থাপন

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের চানপট্টি গ্রামে একটি পারিবারিক কবরস্থানের জায়গা দখল করে প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে গরুর খামার স্থাপনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কবর স্থানে শায়িত ব্যক্তিদের স্বজনেরা বাধা দিলেও প্রভাবশালী ব্যক্তি উল্টো দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়েছেন। কবরস্থানের পবিত্রতা রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য স্থানীয়রা ভাঙ্গা উপজেলা ইউএনও'র কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের তোফাজ্জেল শিকদারসহ তার পরিবারের সদস্যরা প্রায় শতবছর ধরে বসত বাড়ির পাশেই পারিবারিক কবরস্থান তৈরি করেন। মারা যাওয়ার পরওই পরিবারের বহু সদস্যকে কবরস্থানে দাফন করা হয়। এলাকার বাসিন্দারাও বিষয়টি জানেন। সম্প্রতি একই গ্রামের নজরুল শিকদার ও শামসু শিকদার কবর স্থানের জায়গা দখর করে সেখানে গোয়ালঘর নির্মাণ করেন। পরে কবরস্থানের পুরো জায়গায় গরুর খামার নির্মাণ করেন। এতে গরুর খামারের মল-মূত্র পুরো কবরস্থানে ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন ও মৃত পরিবারের স্বজনরা প্রতিবাদ জানান। প্রতিকার পেতে ঘটনাটি এলাকাবাসী, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানানো হয়। কিন্তু প্রভাবশালী নজরুল শিকদার কারো কথার তোয়াক্কা না করে খামার নির্মাণ কাজ অব্যাহত রাখে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। হাবিজুল শিকদার নামে এক ব্যক্তি ভাঙ্গার ইউএনও’র কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য, আব্দুর রশীদসহ এলাকার লোকজন জানান, ওই জায়গাটি বহু বছর ধরে পারিবারিক কবরস্থান হিসেবে চিহ্নিত। এখানে অনেক লাশ দাফন করা হয়েছে। বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর। কবরস্থান থেকে গরুর খামার অন্যত্র নেওয়া উচিৎ। কিন্ত প্রতিপক্ষ সামসু শিকদার কারো কোনো কথা শুনছে না।

কবরস্থানে জায়গা দখলের কথা স্বীকার করে নজরুল শিকদার ও কামরুল শিকদার বলেন, খামারের জায়গা কম হওয়ায় আমরা কিছুটা জমি নিয়েছি।

এ ব্যাপারে ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নাজিম উদ্দিন অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, যেহেতু বিষয়টি স্পর্শকাতর। তাই তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা