kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ বৈশাখ ১৪২৮। ১০ মে ২০২১। ২৭ রমজান ১৪৪২

অটোরিকশাচালককে গলা কেটে হত্যা, গ্রেপ্তার ২

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি   

৪ মে, ২০২১ ১৭:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অটোরিকশাচালককে গলা কেটে হত্যা, গ্রেপ্তার ২

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে অটোরিকশা চুরির জন্য রাশিদুল ইসলাম নামের এক অটোরিকশাচালককে গলাকেটে হত্যা করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে উপজেলার বোর্ডঘর এলাকার সড়কের পাশ থেকে ওই চালকের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের দুলাভাই সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে। অটোরিকশার রিকশার জন্যই তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতার জানায়। 

নিহত রশিদুল ইসলাম (২২) নীলফামারী সদর থানার ডুবাচুরি এলাকার ওসমান গণির ছেলে। তিনি কালিয়াকৈরের লতিফপুর এলাকার কালামের বাসার ভাড়াটিয়া।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- টাঙ্গাইলের বেগমডাল এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে মংলা (৪০) ও কালিয়াকৈরে চাপাইর এলাকার মৃত শাহজাহানের ছেলে সাজু (২৯)।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, জীবিকার খোঁজে প্রায় এক মাস আগে নিজ গ্রাম থেকে ঢাকার মিরপুরে একটি কারখানায় চাকরি নেন রশিদুল ইসলাম। কিন্তু লকডাউনের কারণে ওই প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ হওয়ায় কয়েক দিন আগে গাজীপুরের কালিয়াকৈরের লতিফপুর এলাকায় এসে কালামের বাসার একটি কক্ষ ভাড়া নেয় এবং তার বোনজামাই সাইফুল ইসলামের একটি অটোরিকশা চালাতে থাকেন। প্রতিদিনের মতো সোমবার সকালে অটোরিকশা নিয়ে কাজে বের হন রশিদুল। সন্ধ্যার সময় কালিয়াকৈর বাজার থেকে মংলা নামের ওই ব্যক্তি পার্শ্ববর্তী মির্জাপুর উপজেলার মিলগেট এলাকায় যাওয়ার কথা বলে রশিদুলকে নিয়ে যায়। পরে বোর্ডঘর এলাকার (জিএমএস) গার্মেন্টের উত্তর পাশে পৌঁছলে রশিদুলকে গলা নির্মমভাবে কেটে হত্যা করে তার অটোরিকশাটি নিয়ে যায়। পরে আজ মঙ্গলবার সকালে স্থানীয়রা একটি লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ওই স্থান থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। পরে নিহতের স্বজন এবং এলাকাবাসীর সহায়তায় পুলিশ মংলাকে গ্রেপ্তার করে। মংলা স্বীকারোক্তি মোতাবেক অপর আসামি সাজুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, অটোরিকশার জন্যই তাকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।



সাতদিনের সেরা