kalerkantho

রবিবার । ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৩ জুন ২০২১। ১ জিলকদ ১৪৪২

মাটি কাটা নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ স্কুলছাত্রের মৃত্যু

সিলেট অফিস   

২ মে, ২০২১ ০০:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাটি কাটা নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ স্কুলছাত্রের মৃত্যু

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলায় জমির মাটি কাটা নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে সুমেল মিয়া (১৮) নামের এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে। সে উপজেলার চৈতন নগর গ্রামের আব্দুল মানিকের ছেলে ও স্থানীয় শাহজালাল ঘাগুটিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র।

শনিবার (১ মে) বিকেলে উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের চৈতন নগর গ্রামের সাইফুল আলম ও নজির উদ্দিন পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন নিহত সুমেলের পিতা আব্দুল মানিক (৫০), চাচা যুক্তরাজ্য প্রবাসী মনির মিয়া (৪৫) ও চাচাতো ভাই সালেহ আহমদ (৩০)। তাদের তিনজনকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার ‘চৈতননগর-ইসলামপুর-টুকেরবাজার সড়ক’ ভরাটের জন্য নজির উদ্দিন পক্ষের কৃষি জমি থেকে জোরপূর্বকভাবে সাইফুল আলমের লোকজন মাটি কাটা শুরু করে। এসময় নজির উদ্দিনের লোকজন বাধা দিলে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এ নিয়ে হাতাহাতির একপর্যায়ে বন্দুক ও পিস্তল দিয়ে গুলি করেন সাইফুল আলম। এতে নিহত সুমেল, তার পিতা, চাচা ও চাচাতো ভাই গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাদেরকে সন্ধ্যায় সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমেলকে মৃত ঘোষণা করেন। 

ঘটনার পর থেকে সাইফুল আলম পলাতক রয়েছেন। খবর পেয়ে সন্ধ্যায় সিলেটের ওসমানী নগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম, থানার ওসি শামীম মুসা, তদন্ত ওসি রমাপ্রসাদ চক্রবর্তী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

বিশ্বনাথ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামীম মুসা বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে চারজনকে আটক করা হয়েছে এবং বাকিদের আটক করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে তিনি জানান।



সাতদিনের সেরা