kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

সালথায় পুলিশ হেফাজতে হামলা মামলার আসামির মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১ মে, ২০২১ ১৬:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সালথায় পুলিশ হেফাজতে হামলা মামলার আসামির মৃত্যু

ফরিদপুরের সালথায় আবুল হোসেন আলী (৪৫) নামে পুলিশের দায়ের করা মামলার আসামি পুলিশ হেফাজতে স্ট্রোক জনিত কারণে মারা গেছেন। তিনি সালথা উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের গোপালিয়া গ্রামের মৃত ইমান উদ্দিনের ছেলে।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান জানান, গত ৫ এপ্রিল রাতে সালথায় তাণ্ডবের ঘটনায় জড়িত থাকায় পুলিশের দায়ের করা হামলার মামলার আসামি আবুল হোসেন আলীকে গত কয়েকদিন আগে গ্রেপ্তার করা হয়। গত ২৮ এপ্রিল পুলিশ তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

তিনি বলেন, শনিবার দিবাগত শেষ রাতে তিনি (আবুল হোসেন) সেহরি খেয়ে নামাজ পড়ে টয়লেটে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে বমি করেন। তাকে অসুস্থ অবস্থায় ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঘোষণা করেন।

পুলিশ সুপার জানান, এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশাকে প্রধান করে চার সদস্যর একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ওই তদন্ত কমিটিকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া ময়না তদন্তদ প্রতিবেদন পাওয়া গেলে মৃত্যুর কারণ বিস্তারিত জানা যাবে।

এ ব্যাপারে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক গণেশ আগরওয়াল জানান, আবুল হোসেনের শরীরে কোনো ধরণের আঘাতের চিহ্ন বা অন্য কোনো অস্বাভাবিকতা দেখা যায়নি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে স্ট্রোক (মস্তিস্কে রক্ত ক্ষরণ) জনিত কারণে তার মৃত্যু হতে পারে।

এদিকে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আবুল হোসেন আলীর বড় ছেলে সম্প্রতি এলাকার একটি মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনা নিয়ে তিনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন।

সূত্র মতে, লকডাউনকে কেন্দ্র করে গুজব ছড়িয়ে গত ৫ এপ্রিল সালথা উপজেলা পরিষদ কার্যালয়সহ বিভিন্ন সরকারি অফিসে হামলা চালায় উত্তেজিত জনতা। এ সময় দুটি সরকারি গাড়িসহ কয়েকটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয় তারা। এ ঘটনায় দুই ব্যক্তি নিহত হয়। এতে প্রায় তিন কোটি টাকার ক্ষতি হয়।



সাতদিনের সেরা