kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩ আগস্ট ২০২১। ২৩ জিলহজ ১৪৪২

গণপরিবহন চালুর দাবিতে শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধ

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি   

২৯ এপ্রিল, ২০২১ ১৯:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গণপরিবহন চালুর দাবিতে শ্রমিকদের মহাসড়ক অবরোধ

অবিলম্বে গণপরিবহন চালুর দাবিতে নীলফামারীর সৈয়দপুরে ঘণ্টাব্যাপী মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষুব্ধ  পরিবহন শ্রমিকরা। আজ বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) সৈয়দপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল সংলগ্ন ট্রাফিক পুলিশ সিগন্যাল এলাকায় ওই অবরোধ করা হয়েছে।

এদিন বেলা পৌনে ১১টার দিকে বিক্ষুব্ধ পরিবহন শ্রমিকরা সৈয়দপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে বাস-মিনিবাস, মাইক্রোবাস বের করে নিয়ে এসে সৈয়দপুর কেন্দ্রীয় বাস-টার্মিনাল সংলগ্ন ট্রাফিক পুলিশ সিগন্যাল এলাকায় দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়কে এলোপাতাড়ি রেখে অবরোধ সৃষ্টি করেন। দুপুর পৌনে ১২টা পর্যন্ত প্রায় ঘণ্টাব্যাপী অবরোধকালে সৈয়দপুর-রংপুর,  সৈয়দপুর-দিনাজপুর, সৈয়দপুর-নীলফামারী, পার্বতীপুর-সৈয়দপুর সড়ক ও মহাসড়কের উভয় পাশে বিভিন্ন রকম যানবাহন আটকা পড়ে। এতে সড়ক ও মহাসড়কে ট্রাক, মাইক্রোবাস, কার, পিকআপ, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা, রিকশা, রিকশাভ্যানে থাকা নানা পেশার বিভিন্ন বয়সী লোক চরম দুর্ভোগে পড়েন।

সাধারণ পরিবহন শ্রমিকদের সড়ক ও মহাসড়ক অবরোধের খবর পেয়ে নীলফামারী জেলা বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক পরিবহন শ্রমিক নেতা মো. মমতাজ আলী দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। তিনি বিক্ষুব্ধ পরিবহন শ্রমিকদের উদ্দেশে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন। পরে তার আশ্বাসে শ্রমিকরা অবরোধ তুলে দেন। এর সড়ক ও মহাসড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

সৈয়দপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিক্ষুব্ধ এক পরিবহন শ্রমিক জানান, সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের কারণে গত ১৪ এপ্রিল থেকে সারা দেশে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে গণপরিবহনে নিয়োজিত সাধারণ শ্রমিকরা একেবারে কর্মহীন। প্রতিদিনের আয়-রোজগার না থাকায় তারা পরিবার নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। গত বছর করোনাকালে গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও সরকারি-বেসরকারিভাবে পরিবহন শ্রমিকদের নানাভাবে সাহায্য-সহযোগিতা দেওয়া হয়। কিন্তু এবারে কঠোর লকডাউনের দীর্ঘ প্রায় ১৫ দিন গত হলেও এখন পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারিভাবে কোনো সহায়তা প্রদান করা হয়নি। এতে করে পরিবহন শ্রমিকরা চরম বিপাকে পড়েছেন।



সাতদিনের সেরা