kalerkantho

বুধবার । ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৮ জুলাই ২০২১। ১৭ জিলহজ ১৪৪২

কুকুরের মাথা ও চামড়াসহ কেরানীগঞ্জে কসাই আটক

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

২৯ এপ্রিল, ২০২১ ০১:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুকুরের মাথা ও চামড়াসহ কেরানীগঞ্জে কসাই আটক

ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার কোণ্ডা ইউনিয়নের হাসনাবাদ এলাকা থেকে কুকুরের মাথা, নাড়িভুঁড়ি, চামড়াসহ সুরুজ নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) দিবাগত রাতে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার হাসনাবাদ হাউজিং থেকে তাকে হাতেনাতে আটক করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ জনতার হাত থেকে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

আটক যুবক হাসনাবাদ হাউজিং কমিউনিটি সেন্টার রোডের হাজি জাহিদের বাড়িতে ভাড়া থাকত। সুরুজ একটি মাংসের দোকানে চাকরি করত। গত ১০-১৫ দিন যাবৎ তার চাকরি ছিল না বলে জানান মাংসের দোকানের মালিক জাকির। তার গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও। সে তিন মাস ধরে এ এলাকায় বসবাস করছিল।

পরে আমি আরো কয়েকজনকে নিয়ে তাকে জিজ্ঞেস করি কুকুরের বাচ্চাটা কোথায়, সে বলে ছেড়ে দিয়েছি। পরে বহু জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সে স্বীকার করে, কুকুরের বাচ্চা জবাই করে এক মহিলার কাছে বিক্রি করেছে সে। পরে পাশের এক ডাস্টবিন থেকে কুকুরের মাথা, নাড়িভুঁড়ি ও চামড়া উদ্ধার করে উত্তমমধ্যম শেষে তাকে পুলিশে হস্তান্তর করা হয়েছে।

অপর প্রতিবেশী জানান, আগে আমাদের আশপাশে বহু কুকুরের বাচ্চা ছিল। কিন্তু এখন দু-একটি ছাড়া কোনো বাচ্চা দেখা যাচ্ছে না। ধারণা করা হচ্ছে, সে এগুলো জবাই করে বিক্রি করেছে। সে মাদকাসক্ত বলেও জানায়, স্থানীয়রা ঘটনার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সঞ্জয় মালু কসাইর সহযোগীকে আটকের খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান, আমরা সুরুজ নামে এক মাদকাসক্তকে জনতার হাত থেকে উদ্ধার করে  জিজ্ঞাসাবাদ করে জেনেছি একটি কুকুরের বাচ্চা তার হাতে কামড় দিয়েছে,পরে রাগে সে কুকুরের বাচ্চাটিকে জবাই করে পাশের ডাস্টবিনে ফেলে দিয়েছে। তবে এ নিয়ে তদন্ত হচ্ছে। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে। আর কেউ যদি এ নিয়ে কোনো অভিযোগ করে, আমরা মামলা নিতে প্রস্তুত আছি।



সাতদিনের সেরা