kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ বৈশাখ ১৪২৮। ৭ মে ২০২১। ২৪ রমজান ১৪৪২

জমি বিক্রির দালালির টাকা নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, যুবক নিহত

পাটগ্রাম (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি   

২৮ এপ্রিল, ২০২১ ২২:৫০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জমি বিক্রির দালালির টাকা নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, যুবক নিহত

প্রতীকী ছবি

লালমনিরহাটের জেলার পাটগ্রাম পৌরসভায় জমি বিক্রির দালালির (মধ্যস্থতাকারী) টাকা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে শাহীন মিয়া (৩৩) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পাটগ্রাম পৌরসভার বানিয়াপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত শাহীন পৌরসভার বানিয়াপাড়া গ্রামের সুলতান হোসেনের ছেলে। 

এ ঘটনায় রাতেই নিহতের বড় ভাই আব্দুল কাদের বাদী হয়ে ১৭ ব্যক্তির নামে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। পাটগ্রাম থানা পুলিশ রাতেই তিন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে। তাদের আজ বুধবার দুপুর ১২টার দিকে লালমনিরহাট জেলা আদালতের পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, পাটগ্রাম পৌরসভার বানিয়াপাড়া গ্রামের দুলাল হোসেন (৫৫), নবিউদ্দিন ভুট্টু, (৪৩) ও তার ছেলে শামীম মিয়া (২১) এদের বাড়ি একই গ্রামে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পাটগ্রাম পৌরসভার বানিয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা বুলু মিয়া (৪৮) ও একই গ্রামের আব্দুল কাদের (৪২) জমি বিক্রির দালালির (মধ্যস্থতাকারী) কাজ করেন। 

সম্প্রতি ওই গ্রামের একটি জমি ক্রয়-বিক্রয় করার কথা চলছিল বুলু মিয়া ও আব্দুল কাদেরর। এতে ওই জমি বিক্রির দালালির নিয়ে বিরোধের সৃষ্টি হয় দুইজনের মধ্যে। এনিয়ে মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে পৌরসভার আন্তঃজেলা মোড়ে এলাকায় প্রথম দফা বুলু মিয়ার সঙ্গে আব্দুল কাদেরের মধ্যে কথা কথা কাটাকাটি হয়। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বুলু মিয়া ও আব্দুল কাদেরের লোকজনের মধ্যে দেশিও অস্ত্র, ছোড়া, বাঁশের লাঠি ও লোহার রড নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে আব্দুল কাদেরের ছোট ভাই শাহীন মিয়া গুরুতর আহত হন।

স্থানীয়রা আহত শাহীনকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাত সাড়ে ৯টার দিকে শাহীন মারা যান। পরে থানা পুলিশ নিহত শাহীনের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। বুধবার সকালে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।
  
এ বিষয়ে পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বুধবার লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই আব্দুল কাদের থানায় হত্যা মামলা করেছে। ওই মামলায় তিন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদেরকে আজ দুপুর ১২টার দিকে লালমনিরহাট জেলা আদালতের পাঠানো হয়েছে। ওই ঘটনায় জড়িত অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।



সাতদিনের সেরা