kalerkantho

রবিবার । ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৩ জুন ২০২১। ১ জিলকদ ১৪৪২

পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রী, ছেলেকে খুন করে স্বামীর বিষপান!

কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি   

২৬ এপ্রিল, ২০২১ ১৬:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রী, ছেলেকে খুন করে স্বামীর বিষপান!

মাদারীপুরের কালকিনিতে পরকীয়ার জেরে ছেলেকে গলাকেটে হত্যার অভিযোগ ওঠেছে বাবার বিরুদ্ধে। পরে বিষ খাওয়া অবস্থায় বাবাকে উদ্ধার করে ভর্তি করা হয়েছে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে। রবিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে কালকিনি উপজেলার গোপালপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ১০ বছর বয়সী নিহত রনি মাদারীপুর সদরের খৈয়ারভাঙ্গা এতিমখানা থেকে লেখাপড়া করতো।

নিহতের স্বজনরা জানান, সম্প্রতি মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার গোপালপুর এলাকার তোফাজ্জেল হোসেনের স্ত্রী মিনারা একই এলাকার চা বিক্রেতা আব্দুর রশিদের সঙ্গে পরকীয়ায় সম্পর্ক গড়ে তুলেন। গত দেড় মাস আগে মিনারা চা বিক্রেতা রশিদের সঙ্গে পালিয়ে চলে যান। স্ত্রী মিনার চলে যাওয়ার পর থেকে তোফাজ্জেল মানসিক যন্ত্রনা ভুগতে থাকেন। লোকলজ্জার ভয়ে ছেলে ও নিজেকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করে তোফাজ্জেল। সেই অনুযায়ী রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে তোফাজ্জেল ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছেলে রনিকে গলাকেটে হত্যা করেন বলে জানান পরিবারের লোকজন। পরে তিনি নিজেও বিষ পান করেন। খবর পেয়ে পুলিশ এসে নিহত রনির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। পাশাপাশি গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তোফাজ্জেলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। 

অভিযুক্ত তোফাজ্জেলের শ্যালক আনোয়ার হোসেন বলেন, মিনারা পরকীয়ার কারণে চা বিক্রেতা রশিদের সঙ্গে ঢাকায় চলে গেছে। পরে তোফাজ্জেল কষ্ট থেকে বাঁচতে এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডা. সাইফুল ইসলাম জানান, তোফাজ্জেলকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। প্রথমে তার অবস্থা খারাপ থাকলেও এখন কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইশতিয়াক আসফাক রাসেল বলেন, ‘অসুস্থ তোফাজ্জেল সুস্থ হবার পর তার কাছ থেকে ঘটনার বিবরণ শুনে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে স্ত্রী অন্যত্র চলে যাবার কারণের মানসিক যন্ত্রনা থেকে বাঁচতে ছেলেকে হত্যা করে তোফাজ্জেল। পরে সে নিজেও বিষপান করে।’



সাতদিনের সেরা