kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জনবলসংকটে ব্যাহত স্বাস্থ্যসেবা

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৩ এপ্রিল, ২০২১ ০৪:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জনবলসংকটে ব্যাহত স্বাস্থ্যসেবা

নামে ৫০ শয্যা হলেও ৩১ শয্যার জনবল দিয়ে চলছে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। চিকিৎসক ও যন্ত্রাংশের সংকটে কোনো রকমে চলছে হাসপাতালের চিকিৎসাসেবা। এতে চরম ভোগান্তিতে আছেন উপজেলার পৌনে চার লাখ মানুষ।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করা হয়। অথচ এর জন্য বাড়তি কোনো জনবল নিয়োগ দেওয়া হয়নি। ফলে ৩১ শয্যার জনবল দিয়ে চলছে ৫০ শয্যার হাসপাতালটি। 

হাসপাতালে জুনিয়র কনসালট্যান্ট শিশু, জুনিয়র কনসালট্যান্ট মেডিসিন, জুনিয়র কনসালট্যান্ট গাইনি, জুনিয়র কনসালট্যান্ট সার্জারি ও জুনিয়র কনসালট্যান্ট অ্যানেস্থেসিস্ট পদ দীর্ঘদিন ধরে শূন্য। ৯ জন চিকিৎসকের মধ্যে আছেন মাত্র চারজন। খালি আছে আয়ুর্বেদ মেডিক্যাল অফিসারের পদ। সিনিয়র স্টাফ নার্স পাঁচজন, ল্যাব মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট ২ জন, ফার্মাসিস্ট ২ জন, আয়া ১ জন, সুইপার ২ জন, ওর্য়াডবয় ২ জনের পদ খালি। জনবল অপ্রতুল হওয়ায় স্বাস্থ্যসেবা দিতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের।

এ হাসপাতালে রয়েছে সুসজ্জিত অস্ত্রোপচার কক্ষ। রয়েছে সব ধরনের যন্ত্রপাতিও। দীর্ঘদিন ব্যবহার না হওয়ায় নষ্ট হচ্ছে সরঞ্জামগুলো। ইসিজি, আলট্রাসনোগ্রাফি, মেশিন ও প্যাথলজির র্কাযক্রম বন্ধ থাকায় হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগীরা শহরের ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে পরীক্ষা করাতে হয়। এতে গরিব ও অসহায় রোগীরা পড়েন বিপাকে। 

চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোজাম্মেল হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, এ হাসপাতালের একটি ডিজিটাল এক্স-রে মেশিন আছে। জনবল থাকায় রোগীরা এর সেবা পাচ্ছেন। চিকিৎসক ও প্যাথলজিস্ট শূন্য পদ পূরণ করা হলে ল্যাব ও অস্ত্রোপচার কক্ষ চালু করা হবে। রোগীরা চিকিৎসা পাবেন। জনবল কম হলেও আমরা চিকিৎসাসেবা চালিয়ে যাচ্ছি।



সাতদিনের সেরা