kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি, প্রবাসীর নামে লক্ষ্মীপুরে মামলা

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি    

২৩ এপ্রিল, ২০২১ ০১:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি, প্রবাসীর নামে লক্ষ্মীপুরে মামলা

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক লাইভে এসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগে লক্ষ্মীপুরে সৌদি প্রবাসীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্তের নাম আবু সাঈদ। লক্ষ্মীপুর জেলা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট জসীম উদ্দিন বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১১ টার দিকে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসীম উদ্দিন মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে মামলাটি থানায় রুজু করা হয়।

আসামি আবু সাঈদ লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড সাহাপুর এলাকার মৃত নূর মোহাম্মদের ছেলে। তিনি সৌদি প্রবাসী ও বর্তমানে সৌদিতে অবস্থান করছেন।

এজাহার সূত্র জানায়, গত ৩ এপ্রিল আসামি আবু সাঈদ তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে লাইভে আসেন। ৬ মিনিট ৫৯ সেকেন্ডের লাইভ ভিডিওতে তিনি বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী, পুলিশ প্রশাসন, আওয়ামী লীগ ও গণমাধ্যমকর্মীদের নিয়ে আপত্তিকর বিভিন্ন কথা বলে। হেফাজতের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে লাইভে তিনি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের রিসোর্টে আক্রমণ করে আওয়ামী লীগ সমর্থক ও পুলিশ প্রশাসনের লোকজনকে হত্যা করে লাশ গুম করার আহ্বান জানান। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা করার হুমকি দেয়। ওই লাইভ ভিডিও বিভিন্নজন জঙ্গীবাদ ও আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন। এতে দেশ ও আওয়ামী লীগের সুনাম ক্ষুণ্ন হয়েছে।  ভিডিওটি পিপি জসিম উদ্দিনের নজরে পড়লে তিনি আবু সাঈদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থার উদ্যোগ নেন।

জেলা জজ আদালতের পিপি জসিম উদ্দিন বলেন, মামুনুল হক ও হেফাজতের পক্ষ নিয়ে আবু সাঈদ লাইভে এসে আপত্তিকর ও বেপরোয়া বক্তব্য দিয়েছে। সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। এমন উসকানিমূলক বক্তব্যে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়। আসামিকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি করছি। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) নজরুল ইসলাম বলেন, আসামির ফেসবুক আইডি ফরেনসিকে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পেলে জড়িতদের শনাক্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসীম উদ্দিন বলেন, আসামি সৌদিতে অবস্থান করছেন। মামলাটি তদন্ত চলছে। সত্য উদঘাটন করতে নিয়ম অনুযায়ী আইনানুগ প্রক্রিয়া গ্রহণ করা হচ্ছে।



সাতদিনের সেরা