kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

কৃষি শ্রমিক পরিবহনে পুলিশের হয়রানি, চাঁদা দাবির অভিযোগ

নাটোর প্রতিনিধি    

২০ এপ্রিল, ২০২১ ১১:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কৃষি শ্রমিক পরিবহনে পুলিশের হয়রানি, চাঁদা দাবির অভিযোগ

নাটোরে শুরু হয়েছে বোরো ধান কাটার মৌসুম। ধান কাটতে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রতিবছর কয়েক হাজার কৃষি শ্রমিকের আগমন ঘটে নাটোরের হালতি বিল ও চলন বিল এলাকায়।

বর্তমানে সারা দেশে কঠোর লকডাউন থাকায় কৃষি শ্রমিকদের আসতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তার ওপর ঝলমলিয়া হাইওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে হয়রানি ও চাঁদাবাজির অভিযোগ তুলেছেন এসব কৃষি শ্রমিক।

সরোজমিনে দেখা যায়, কুষ্টিয়ার ভেরামারা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল মারুফ স্বাক্ষরিত প্রত্যায়নপত্র নিয়ে চলন বিলে প্রবেশ করতে যান ৩৩ জন শ্রমিক। তবে নাটোরের ঝলমলিয়া হাইওয়ে ফাঁড়ির সামনে আটকে দেওয়া হয় তাদের বহনকারী পরিবহনটি।

শ্রমিকরা জানান, চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার প্রত্যয়নপত্রও মানছে না পুলিশ। তারা টাকা দাবি করছে। টাকা না দিলে মামলা দেওয়ার হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে জানান কৃষি শ্রমিকরা।

তবে চাঁদা দাবির বিষয়টি অস্বীকার করেছেন ঝলমলিয়া হাইওয়ে ফাঁড়ি ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজওয়ান। ওপরের নির্দেশে তাঁরা এ কার্যক্রম চালাচ্ছেন বলে দাবি করেন তিনি।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. শাহ রিয়াজের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, 'নাটোরের বিভিন্ন এলাকার বিলে এখন ধান কাটার মৌসুম শুরু হয়েছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এসব কৃষি শ্রমিক যাতে ধান কাটতে যেতে পারেন তার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে'। 



সাতদিনের সেরা