kalerkantho

রবিবার । ২৬ বৈশাখ ১৪২৮। ৯ মে ২০২১। ২৬ রমজান ১৪৪২

দুই হাত ওড়না দিয়ে বাঁধা, সিলিংয়ে ঝুলছিল প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

২০ এপ্রিল, ২০২১ ০৮:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুই হাত ওড়না দিয়ে বাঁধা, সিলিংয়ে ঝুলছিল প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ

সাদিয়া আক্তার সেতু।

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী ওয়াজেদ আলীর স্ত্রী সাদিয়াকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার পর ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাতে রাতে মির্জাপুর উপজেলার বাঁশতৈল ইউনিয়নের পেকুয়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। পুলিশ পেছনে দুই হাত বাঁধা অবস্থায় স্বামীর বাড়ি থেকে ফাঁসিতে ঝোলানো ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে।

পুলিশ ও গৃহবধূর পারিবারিক সূত্র জানান, উপজেলার বাঁশতৈল ইউনিয়নের পেকুয়া এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী মো. ওয়াজেদ আলীর সঙ্গে একই উপজেলার আজগানা ইউনিয়নের বেলতৈল গ্রামের সেলিম মিয়ার মেয়ে সাদিয়া আক্তার সেতুর দুই বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে সাদিয়ার সঙ্গে স্বামীর বাড়ির লোকজনের সম্পর্ক ভালো যাচ্ছিল না।

স্বামী সাউথ আফ্রিকা চলে যাওয়ার পর শ্বশুর বাড়ির লোকজনের সঙ্গে সম্পর্কের কিছুটা অবনতি ঘটে সাদিয়ার। রমজানের কয়েক দিন আগে সাদিয়া শ্বশুর বাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে আসে। গত দুই দিন আগে সাদিয়া আবার শ্বশুর বাড়ি চলে যায়। সাদিয়ার শ্বশুর, শাশুড়ি ও তানজিলা নামে এক ননদ নিয়ে বসবাস করতেন।

সোমবার সন্ধ্যার পর সাদিয়াকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার পর লাশ ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে বলে সাদিয়ার বাবা সেলিম মিয়া ও তার আত্মীয়রা অভিযোগ করেছেন। খবর পেয়ে মির্জাপুর থানা পুলিশ রাতে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওড়না দিয়ে দুই হাত পেছনে বাঁধা অবস্থায় ফাঁসিতে ঝুঁলানো সাদিয়ার লাশ উদ্ধার করে।

মির্জাপুর থানার এসআই মো. আজিম খান জানান, দুই হাত ওড়না দিয়ে পেছনে পেঁচানো অবস্থায় গৃহবধূ সাদিয়ার ঝুঁলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। এটি হত্যা না আত্মহত্যা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে। তবে এটি হত্যা হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে। এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি বলে তিনি জানান।



সাতদিনের সেরা