kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ বৈশাখ ১৪২৮। ৭ মে ২০২১। ২৪ রমজান ১৪৪২

চাটমোহর হাটে মানুষের ঢল, নেই প্রশাসনের তৎপরতা

চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি   

১৮ এপ্রিল, ২০২১ ১৪:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাটমোহর হাটে মানুষের ঢল, নেই প্রশাসনের তৎপরতা

মহামারি করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে সমগ্র দেশে চলছে সাত দিনের ‘কঠোর’ লকডাউন। সমগ্র দেশব্যাপী নানা ধরনের সতর্কতা অবলম্বন করে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে সভা সমাবেশ, মিটিং, সামাজিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠান বন্ধসহ প্রশাসনিক বিধি-নিষেধ আরোপ থাকলেও চাটমোহর হাটে রবিবার সকাল থেকেই বিপুল লোকসমাগম দেখা গেছে। প্রশাসনের তেমন কোনো নজরদারি না থাকায় মানুষ বেপরোয়াভাবে হাটে ঘোরাফেরা ও বেচাকেনা করেছে। হাটের এমন চিত্র দেখে মনে হবে 'হাটে কোনো করোনা নেই'।

বড় ধরনের লোকসমাগমের স্থানগুলোতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলেও পাবনার চাটমোহর উপজেলার হাট-বাজারে লোকসমাগম নিয়ন্ত্রণে তেমন কোনো ভূমিকা নেই উপজেলা প্রশাসনের। প্রশাসনের নজরদারি ও প্রচারণা একবারেই না থাকায় হাট-বাজারে আগত জনসাধারণ কোনো নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা করছে না। চাটমোহর উপজেলার সর্ববৃহৎ হাটটি হলো রেলবাজার (অমৃতকুন্ডা) হাট। সপ্তাহের প্রতি রবিবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলে এই হাটে আগত মানুষের কেনাকাটা। দূরদূরান্ত থেকে এই হাটে আগত লক্ষাধিক মানুষের সমাগম হয়। হাটে আগত অধিকাংশ গ্রামের মানুষদের এই করোনাভাইরাস নিয়ে সঠিক নির্দেশনা বিধি-নিষেধ জানা নেই। শুধু তারা জানে মুখে মাস্ক পরতে হবে। ফলে এই হাট থেকে ব্যাপকভাবে করোনাভাইরাস সমগ্র গ্রামগঞ্জে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সৈকত ইসলাম জানান, রেলবাজার হাটে আজ আমাদের পক্ষ থেকে সকালে মাইকিং করা হয়েছে। তবে স্বাস্থ্যবিধি মানুষ না মেনে চলাচল করলে জনসচেতনতা না থাকলে এটা দুঃখজনক ব্যাপার। আমি এখনই হাটে নজরদারি বৃদ্ধিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।



সাতদিনের সেরা