kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ বৈশাখ ১৪২৮। ১০ মে ২০২১। ২৭ রমজান ১৪৪২

রায়পুরায় ইউপি সদস্যের বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর-লুট

রায়পুরা (নরসিংদী) প্রতিনিধি   

১৭ এপ্রিল, ২০২১ ২০:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রায়পুরায় ইউপি সদস্যের বাড়িতে হামলা-ভাঙচুর-লুট

নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়নে একটি সালিশকে কেন্দ্র করে ইউপি সদস্য ও তার বোন সংরক্ষিত নারী সদস্যর বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে একই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির সরকারের বিরুদ্ধে।

গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টায় ওই ইউনিয়নের বাঙালিনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে এ ঘটনায় চেয়ারম্যান ও তার ছেলে সানি সরকারসহ ছয়জনকে আসামি করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী ফিরোজ সরকার।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,  একটি সালিসকে কেন্দ্র করে মির্জানগর ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির সরকারের সঙ্গে ৪নং ওয়ার্ড সদস্য হিরণ সরকার ও তার বোন সংরক্ষিত মহিলা (৪, ৫, ৬) সদস্য লোকমহলের বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরে গতরাতে তারাবি নামাজ চলাকালে পুরুষশূন্য বাড়িতে চেয়ারম্যান ও তার ছেলের উপস্থিতে ১০০/১৫০ লোকজন দেশি চাপাতি, দা, রড, লাঠি বাড়িতে হামলা চালায়। ইউপি সদস্য কিরণ সরকারসহ তার তিন ভাই ফিরোজ সরকার, খলিল সরকার ও বাচ্চু মিয়ার ঘরে ভাঙচুর, নগদ অর্থ ও সোনার গহনা লুট করে নিয়ে যায় তারা। ওই সময় হামলায় তানহা (৮) ও জসিম (১৫) এক কিশোর আহত হয়।

মির্জানগর ইউপি সদস্য লোকমহল বলেন, চেয়ারম্যান ও তার ছেলে সানির নেতৃত্বে ১০০/১৫০ লোক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়িঘরে ভাঙচুর চালিয়ে নগদ অর্থ, সোনার গহনা লুট করে নিয়ে যায়। ওই সময় তারা বাড়ির নারীদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।

অভিযোগ পুরোপুরি মিথ্যা ও বানোয়াট দাবি করে মির্জানগর ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির সরকার বলেন, তারা নিজেরাই তাদের বাড়িঘরে ভাঙচুর চালিয়েছে।

রায়পুরা থানার এসআই দেব দুলাল দে বলেন, ভুক্তভোগী ইউপি সদস্য হিরণ সরকারের ভাই ফিরোজ সরকার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা