kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

প্রতিবেশীকে মরিচ দেওয়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রী দ্বন্দ্ব, শেষে কীটনাশক খাইয়ে হত্যা

রায়পুরা (নরসিংদী) প্রতিনিধি   

১৬ এপ্রিল, ২০২১ ২১:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রতিবেশীকে মরিচ দেওয়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রী দ্বন্দ্ব, শেষে কীটনাশক খাইয়ে হত্যা

নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার চরসুবুদ্ধি ইউনিয়নের আব্দুল্লাহপুর এলাকায় পারভীন আক্তার (৪০) নামে এক গৃহবধূকে নির্যাতনের পর কীটনাশক ট্যাবলেট খাইয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী বাবুল মিয়ার বিরুদ্ধে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নরসিংদী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ গতরাতে উপজেলার মনিপুরা এলাকা থেকে ঘাতক স্বামী বাবুল মিয়াকে আটকের পর জেলা হাজতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে নিহত গৃহবধূর ভাই মো. রাজ্জুক মিয়া বাদী হয়ে বাবুলকে আসামি করে রায়পুরা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, গত ২২ বছর পূর্বে একই ইউনিয়ন চরসুবুদ্ধির মৃত খালেক মিয়ার ছেলে বাবুল মিয়ার সঙ্গে শুক্কুর আলীর মেয়ে পারভীন আক্তারের বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তাদের দুই ছেলে ও এক মেয়ের জন্ম হয়। বিয়ের পর থেকেই বাবুল তার স্ত্রীকে নির্যাতন করে আসছিলেন। গত বুধবার (১৪ এপ্রিল) প্রতিবেশী এক নারীকে মরিচ দেওয়াকে কেন্দ্র করে স্বামী-স্ত্রীর মধ্য দ্বন্দ্ব বাধে। এরই জেরে বাবুল তার স্ত্রীকে পিটিয়ে মারাত্মভাবে আহত করেন। ওই সময় আঘাতে তার বাম পাশের তিনটি দাঁত ভেঙে যায়। অসহ্য যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকেন পারভীন। এরপর বাবুল তার স্ত্রীকে ব্যাথার ট্যাবলেটের কথা বলে কীটনাশক ট্যাবলেট খাইয়ে দেয়। পরে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

প্রতিবেশী কয়েকজন অভিযোগ করেন, বাবুল তার স্ত্রীর ওপর প্রায়ই নির্যাতন চালায়। কারণে-অকারণে দিনদিন তার নির্যাতনের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে থাকে। পাচঁ বছর আগে তার ছোট ভাই সোলেমানের মিয়ার স্ত্রী নাসিমাও বিষপানে মৃত্যু হয় বলে জানান তারা।

নিহত গৃহবধূর বাবা শুক্কুর আলী জানান, তুচ্ছ ঘটনায় অমানবিক নির্যাতনের পর কীটনাশক ট্যাবলেট খাইয়ে পারভীনকে হত্যা করা হয়েছে। বিয়ের পর থেকেই নিয়মিত নির্যাতন চালিয়ে আসছিল বাবুল। অপরদিকে পারভীনের শাশুড়ি নির্যাতনের কথা শিকার করলেও ছেলেকে নির্দোষ দাবি করেন।

রায়পুরা থানার এসআই দেব দুলাল দে জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতরাতে নিহত গৃহবধূর স্বামী বাবুলকে গ্রেপ্তারের পর জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। 



সাতদিনের সেরা