kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

চুলায় সংযোগ দিতেই সিলিন্ডার বিস্ফোরণ, স্বামী-স্ত্রীসহ দগ্ধ ৪

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি    

১৬ এপ্রিল, ২০২১ ১৫:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চুলায় সংযোগ দিতেই সিলিন্ডার বিস্ফোরণ, স্বামী-স্ত্রীসহ দগ্ধ ৪

বগুড়ার শেরপুরে একটি বসতবাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে স্বামী-স্ত্রীসহ চারজন দগ্ধ হয়েছেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেয়া হয়। কিন্তু সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে তাৎক্ষণিক বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) বেলা সোয়া ১০টার দিকে উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের মহিপুর কলোনি গ্রামের আনোয়ার হোসেনের বসতবাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

বিস্ফোরণে দগ্ধরা হলেন- মহিপুর কলোনি গ্রামের আনোয়ার হোসেন (৫৫), তার স্ত্রী হেলেনা বেগম (৪৮), ছেলে নুরুজ্জামান (৩১) ও প্রতিবেশী মোতাহার হোসেনের স্ত্রী আমেনা খাতুন (৪৬)।

শেরপুর ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন কর্মকর্তা রতন হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মহিপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেন স্থানীয় বাজার থেকে একটি নতুন গ্যাস সিলিন্ডার নিয়ে বাড়িতে যান। এরপর রান্নাঘরে গিয়ে চুলার সঙ্গে গ্যাস সিলিন্ডারের সংযোগ দেওয়ার চেষ্টা করছিলেন। এসময় হঠাৎ গ্যাস সিলিন্ডারে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে তিনিসহ তার পরিবারের তিনজন দগ্ধ হন। আর তাদের উদ্ধার করতে গিয়ে প্রতিবেশী এক নারী দগ্ধ হয়েছেন। একপর্যায়ে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি ঘটে। পরে তাৎক্ষণিক বগুড়ায় শজিমেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা দেওয়া হয় বলে জানান এই স্টেশন কর্মকর্তা।

দগ্ধ আনোয়ার হোসেন বলেন, চুলার সঙ্গে গ্যাস সিলিন্ডারে সংযোগ দেওয়ামাত্রই বিস্ফোরণ ঘটে। মুহূর্তের মধ্যে পুরো রান্নাঘরে আগুন লেগে যায় বলে জানান তিনি।

শেরপুর হাসপাতালে জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. মামুনুর রশিদ বলেন, আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বগুড়ায় শজিমেকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তাদের শরীরের ৩৫ শতাংশ পুড়ে গেছে বলে জানান এই চিকিৎসক।



সাতদিনের সেরা