kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

মাদক ব্যবসার জের: চা খাচ্ছিলেন সৎভাই, পেছন থেকে দা দিয়ে কোপ

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ১৪:৫৪ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



মাদক ব্যবসার জের: চা খাচ্ছিলেন সৎভাই, পেছন থেকে দা দিয়ে কোপ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার ভারত সীমান্ত সংলগ্ন জামালপুরে মাদক ব্যবসা নিয়ে বিরোধে ফাহমিদ হোসেন (৪২) নামের সৎভাইকে গলা কেটে হত্যা করেছেন এক ভাই। আজ রবিবার সকাল ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তিনি জামালপুর গ্রামের আবদুস সাত্তার ওরফে মন্ডলের ছেলে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, জামালপুর গ্রামের দু'দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে বিরোধের জেরে আজ সকালে ফাহমিদ বাড়ির পাশের একটি চায়ের দোকানে বসে চা পান করছিলেন। এ সময় পেছন থেকে তার সৎভাই মিলন হোসেন দা দিয়ে ফাহমিদের ঘাড়ে কোপ দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এরপর ভাই হত্যাকারী মিলন সীমান্ত পার হয়ে ভারতে পালিয়ে যান। 

দৌলতপুর থানার পরিদর্শক শাহাদত হোসেন জানান, ফাহমিদ ও মিলন দুজনই মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। মাদক ব্যবসার বিরোধের জের ধরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। নিহত ফাহমিদও ভালো মানুষ ছিলেন না। একটি হত্যা মামলায় ভারতে কারাভোগের পর গত বছর তিনি দেশে ফিরে আবার মাদক ব্যবসা শুরু করেছিলেন।



সাতদিনের সেরা