kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরীর পরিবারের কাছে ৫ লাখ টাকা দাবি!

বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

১০ এপ্রিল, ২০২১ ১৬:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরীর পরিবারের কাছে ৫ লাখ টাকা দাবি!

হাসান প্রকাশ ইমন

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে প্রতিবেশীর ধর্ষণে এক কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনার বিচারের আশ্বাস দিয়ে দীর্ঘ সাত মাস সময় নষ্ট করেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। এরপর ধর্ষণের শিকার কিশোরীর পরিবারের কাছেই দাবি করা হয় ৫ লাখ টাকা। উপায়ন্তর না দেখে ওই কিশোরীর মা গতকাল শুক্রবার রাতে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃত যুবক হাসান ওরফে ইমন (১৯)। তিনি কড়ল ডেঙ্গা ইউনিয়নের তালুকদার পাড়া নুর হোসেন মেম্বার বাড়ির মো. রহমত উল্লাহর ছেলে। গতকাল রাতে মামলার পর অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে বোয়ালখালী থানা পুলিশ।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ২০ আগস্ট সন্ধ্যায় কিশোরীর বাড়িতে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করেন ইমন। এ সময় বাড়িটি ফাঁকা ছিল। এর পর একইভাবে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন ইমন। পরে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। কিশোরীর পরিবার বিষয়টি ইমনের বাবা রহমত উল্লাহকে জানালে তিনি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করার কথা বলে সময়ক্ষেপণ করতে থাকেন। পরে নিরুপায় হয়ে থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

মামলার বাদী কিশোরীর মা বলেন, স্থানীয় প্রভাবশালী নেতা ও কয়েকজন জনপ্রতিনিধি মীমাংসার নামে সময় ক্ষেপন করে। পরে পাঁচ লাখ টাকা জমা দিলে সমাধান করে দেওয়ার প্রস্তাব দেয়। তারা হত দরিদ্র মানুষ এত টাকা দেওয়ার সামর্থ্য না থাকায় আইনের আশ্রয় নেন বলে জানান তিনি।

বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল করিম বলেন, এ ঘটনায় নারী ও শিশু আইনে মামলা রজু করা হয়েছে। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে যদি আরো কেউ জড়িত থাকে তাহলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা