kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

কুমিল্লায় ওষুধ কারখানায় বিস্ফোরণ, আহত ৬

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা   

৭ এপ্রিল, ২০২১ ১৭:২৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কুমিল্লায় ওষুধ কারখানায় বিস্ফোরণ, আহত ৬

কুমিল্লার বিসিক শিল্প নগরীতে বেঙ্গল ড্রাগ অ্যান্ড কেমিক্যাল ওয়ার্কস (ফার্মাসিউটিক্যালস) নামের একটি ওষুধ কারখানায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে ভবনের দেয়াল ও গ্লাস ভেঙে অন্তত ছয় শ্রমিক আহত হয়। আজ বুধবার সকাল ১০টার দিকে ভবনের দ্বিতীয় তলায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। 

বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা উদ্ধার কাজ চালায়। তদন্ত ছাড়া ফায়ার সার্ভিস কুমিল্লার সহকারী পরিচালক মো. জসিম উদ্দিন বিস্ফোরণের বিষয়ে স্পষ্ট কিছু না বললেও কারখানার ম্যানেজার রেজাউল করিম দাবি করেন, এসি থেকে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বেঙ্গল ড্রাগ অ্যান্ড কেমিক্যাল ওয়ার্কস (ফার্মাসিউটিক্যালস্) নামের একটি ওষুধ কারখানায় অতিরিক্ত পরিমাণে কেমিক্যাল মজুদ রাখা হয়েছিল। এই মজুদকৃত কেমিক্যাল থেকে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটতে পারে বলে অনেকের ধারণা।

কারখানার ম্যানেজার রেজাউল করিম জানান, সকাল ১০টার সময় হঠাৎ ভবনের দ্বিতীয় তলায় বিস্ফোরণে ভবন কেঁপে উঠে। ভেঙে পড়ে ভবনের দেয়ালসহ বিভিন্ন অংশ। এতে ৬/৭ জন শ্রমিক আহত হয়। 

আহতরা হলো শারমিন (১৬), জুলেখা বেগম (৩৮), শামীমা (৪০), আল আমিন (২৫), ফাহমিদা (২০) ও ফাতেমা (৩৫)। তাদের উদ্ধার করে প্রথমে কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে গুরুতর আহত হওয়া কারখানার কর্মী আল-আমিন ও ক্লিনার শামীমা আক্তারকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।

মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের প্রধান ডা. মীর্জা তাইয়েবুল ইসলাম জানান, বিস্ফোরণ হলেও কারো শরীর পুড়ে যায়নি, ফ্র্যাকচার হয়েছে। তাদের জেনারেল ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি আনোয়ারুল হক জানান, বিস্ফোরণের ঘটনা শুনেই আমরা ছুটে এসেছি। কয়েকজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানোর সহযোগিতা করা হয়েছে। ঘটনার বিস্তারিত বলা যাচ্ছে না। 

ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক মো. জসিম উদ্দিন জানান, কারখানার তিনতলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে দোতলা থেকে উদ্ধার করা হয় আহত ব্যক্তিদের। তারা মূলত বিস্ফোরণে ভেঙে পড়া দেয়ালের ইট ও বিভিন্ন কাচের আঘাতে আহত হন।

তিনি আরো জানান, কারখানার মালিকপক্ষের দাবি, এসির বিস্ফোরণ হয়েছে সেখানে। তবে বিস্ফোরণের পর ভবনের ক্ষতি ও দোতলায় মজুত বিভিন্ন রাসায়নিক দেখে বিস্ফোরণের সম্ভাব্য সব কারণই খতিয়ে দেখা হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা