kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

ওরা পেশায় 'চাঁদাবাজ'!

মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

৬ এপ্রিল, ২০২১ ১৭:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ওরা পেশায় 'চাঁদাবাজ'!

নওগাঁর মান্দায় দোকানঘর নির্মাণে বাধা, প্রাণনাশের হুমকি, মারপিটসহ চাঁদা দাবির ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় তিন চাঁদাবাজকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার সতীহাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- উপজেলার গণেশপুর ইউনিয়নের গণেশপুর গ্রামের সোহরাব হোসেন বাবলুর ছেলে সোহেল রানা (৪২), একই গ্রামের মকলেছুর রহমানের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩৮) ও শ্রীরামপুর গ্রামের আতোয়ার হোসেনের ছেলে সাগর হোসেন (২২)।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সতীহাট শহীদ মিনারের পশ্চিম পাশে ব্যক্তিমালিকানার জমিতে দোকানঘর সম্প্রসারণের জন্য পুরানো ঘরটি ভেঙে দিয়ে নতুনভাবে কাজ শুরু করেন ব্যবসায়ী রেজাউল ইসলাম। কাজ শুরুর পর থেকেই সোহেল রানা, জাহাঙ্গীর আলমসহ সংঘবদ্ধ চক্র ব্যবসায়ী রেজাউল ইসলামের কাছে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি করে আসছিল।

একই দাবিতে গতকাল সোমবার সকালে সোহেল রানা ও জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে ১০-১২ জন দেশীয় অস্ত্রসহ গিয়ে নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেয়। এ সময় চক্রটি ব্যবসায়ী রেজাউল ইসলামকে মারপিটসহ প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী রেজাউল ইসলাম বাদী হয়ে সোমবার রাতে সোহেল রানা, জাহাঙ্গীর আলমসহ অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা দায়ের করেন।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান বলেন, ব্যবসায়ী রেজাউল ইসলামের দায়েরকৃত মামলার তদন্তে সত্যতা পাওয়া যায়। এরপর নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) রকিবুল আক্তারের নেতৃত্বে মঙ্গলবার দুপুরে সতীহাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে সোহেল, জাহাঙ্গীর ও সাগরকে গ্রেপ্তার করে।

ওসি আরো জানান, গ্রেপ্তারকৃতরা এলাকার চিহ্নিত চাঁদাবাজ। টাকার বিনিময়ে অন্যের জমি জবরদখল, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডসহ বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে তারা নিয়মিত চাঁদা আদায় করে থাকে।



সাতদিনের সেরা