kalerkantho

রবিবার। ২৮ চৈত্র ১৪২৭। ১১ এপ্রিল ২০২১। ২৭ শাবান ১৪৪২

সোনারগাঁও থানার ওসিকে বদলি

অনলাইন ডেস্ক   

৫ এপ্রিল, ২০২১ ১১:১৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সোনারগাঁও থানার ওসিকে বদলি

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম। ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ ও রয়েল রিসোর্টে হামলার ঘটনায় সোনারগাঁও থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলামকে বদলি করা হয়েছে। রবিবার (৪ এপ্রিল) রাতে ওই ওসিকে বদলি করা হয়।

বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন সোনারগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তবিদুর রহমান। তবে তিনি এটিকে জনস্বার্থে বদলি বলছেন। এর আগে, ২০২০ সালের ৫ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানা থেকে পুলিশ সুপারের নির্দেশে সোনারগাঁও থানার ওসির দায়িত্ব পান রফিকুল ইসলাম।

জানা গেছে, হেফাজত ইসলাম ঢাকা মহানগরের ১০ নম্বর অঞ্চলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুফতি ফয়সাল মাহমুদ বাদী হয়ে স্থানীয় হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীদের নিয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। এ সময় হেফাজতের নেতারা থানার ভেতরে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন। এক পর্যায়ে তারা ৭১ টেলিভিশনের নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি বুলবুল আহম্মেদের মুঠোফোন কেড়ে নিয়ে আছড়ে ভেঙে ফেলেন। তারা গণমাধ্যমকর্মীদের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে দিতে থানার ভেতর থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপজেলা পরিষদ চত্বরে যান। এ ঘটনার পর রবিবার (৪ এপ্রিল) রাতে ওসিকে বদলি করা হয়।

উল্লেখ্য, শনিবার বিকেলে রাজধানীর অদূরে সোনারগাঁয়ের একটি রিসোর্টে হেফাজত নেতা মামুনুল হক একজন নারীসহ অবস্থান করছেন এমন খবর পেয়ে স্থানীয় কিছু লোকজন, ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতা-কর্মীরা তাঁর কক্ষটি ঘেরাও করেন। যদিও মামুনুল হক সঙ্গে থাকা নারীকে তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী বলে দাবি করেন। পরে সন্ধ্যা সোয়া সাতটার দিকে হেফাজতের একদল নেতা–কর্মী, মাদ্রাসাছাত্র মিছিল নিয়ে এসে রয়েল রিসোর্ট নামের ওই অবকাশযাপন কেন্দ্রটিতে ভাঙচুর চালিয়ে মামুনুলকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা