kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

'আলহামদুলিল্লাহ, নিজ ইচ্ছায় ইউনিয়ন যুবলীগ থেকে পদত্যাগ করলাম'

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি    

৪ এপ্রিল, ২০২১ ১৭:৪০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



'আলহামদুলিল্লাহ, নিজ ইচ্ছায় ইউনিয়ন যুবলীগ থেকে পদত্যাগ করলাম'

কেশবপুর উপজেলার বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ওবাইদুর রহমান নীল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে দল থেকে পদত্যাগ করেছেন। আজ রবিবার সকালে তিনি তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে স্বেচ্ছায় দল থেকে পদত্যাগ করার বিষয়ে পোস্ট দেন। এ ঘটনার পর থেকে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

এদিন সকাল ৯টা ২৯ মিনিটে ওবাইদুর রহমান নীল তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে স্বেচ্ছায় দল থেকে পদত্যাগ করার বিষয়ে পোস্ট দেন। পোস্টে তিনি লেখেন, 'আলহামদুলিল্লাহ, আমি নিজ ইচ্ছায় কেশবপুর উপজেলার ৪ নম্বর বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক থেকে পদত্যাগ করলাম। আল্লাহ যেন ঈমানের সাথে মরণ দেন।' তিনি তার ফেসবুক আইডিতে ৯টা ৪৩ মিনিটে আরেকটি পোস্টে লিখেছেন, 'প্রিয় যুবলীগের সহযোদ্ধা বন্ধুরা, দীর্ঘদিন চলার পথে ভুলত্রুটি করে থাকলে আমাকে ক্ষমা করে দেবেন। দোয়া করি মহান আল্লাহ আপনাদের নেক হায়াত দান করুন।' 

যুবলীগ নেতা ওবাইদুর রহমান নীলের ওই লেখা দুটি ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার পর উপজেলাব্যাপী চলছে জোর আলোচনা-সমালোচনা। তবে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক বি এম শহিদুজ্জামান শহিদ ও যুগ্ম আহ্বায়ক আবু সাঈদ লাভলু বরাবর এখনো লিখিত পদত্যাগপত্র দেননি বলে জানা গেছে। ২০১৮ সালের ৪ অক্টোবর রবিউল ইসলামকে আহ্বায়ক এবং ফারুক হোসেন, শামীম আক্তার, ওবাইদুর রহমান নীল ও লিটন হোসেনকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ৪১ সদস্য বিশিষ্ট বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের কমিটি গঠন করা হয়।

কারণ দর্শানোর নোটিশ থেকে জানা গেছে, আপনার (ওবাইদুর রহমান নীল) অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজ য়ন্তী উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকায় আগমনকে কেন্দ্র করে একাত্তরের পরাজিত ধর্ম ব্যবসায়ীদের পক্ষ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের লেখালেখি উপজেলা যুবলীগের নেতাদের দৃষ্টিগোচর হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিব্রত করতেই দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে তথাকথিত ইসলামী উগ্রপন্থীরা রাষ্ট্রের আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে হামলা-ভাঙচুর করছে। আপনি (ওবাইদুর রহমান নীল) সংগঠনের একজন দায়িত্বশীল নেতা হয়ে ওই সমস্ত ধর্মীয় মৌলবাদীগোষ্ঠীর পক্ষ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরকারবিরোধী বিভিন্ন ধরনের পোস্ট আপলোড করতে পারেন না এবং এমন ধরনের কাজ সংগঠনের শৃঙ্খলাপরিপন্থী। এমতাবস্থায় আপনার বিরুদ্ধে কেন দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, নোটিশ পাওয়ার তিন কার্যদিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ করা হলো।

যুবলীগ থেকে পদত্যাগের বিষয়ে ওবাইদুর রহমান নীল জানান, তিনি রাষ্ট্রবিরোধী কোনো কর্মকাণ্ড করেননি। তবুও উপজেলা যুবলীগ গত ২৭ মার্চ কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় এবং তিন কর্মদিবসের মধ্যে লিখিত দিতে বলে। পরে তিনি রবিবার সকালে পারিবারিকভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে দলের কর্মকাণ্ডে সময় দিতে না পারায় স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেন। পদত্যাগপত্রটিও তিনি ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক বি এম শহিদুজ্জামান শহিদ বলেন, সংগঠনবিরোধী কর্মকাণ্ডের কারণে যুবলীগ নেতা ওবাইদুর রহমানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। তিনি নোটিশের উত্তর দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার আগেই কৌশলে পদত্যাগ করেছেন।



সাতদিনের সেরা