kalerkantho

মঙ্গলবার । ১ আষাঢ় ১৪২৮। ১৫ জুন ২০২১। ৩ জিলকদ ১৪৪২

শেরপুরে মামা-ভাগনে দুই শিশু নিখোঁজ

একদিন পর লাশ মিলল ভাগনের, খোঁজ নেই মামার

শেরপুর প্রতিনিধি   

৩ এপ্রিল, ২০২১ ১৮:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



একদিন পর লাশ মিলল ভাগনের, খোঁজ নেই মামার

শেরপুরে মামা-ভাগ্নে দুই শিশু নিখোঁজের একদিন পর ব্রহ্মপুত্র সেতুর নিচ থেকে আরাফাত নামে (৮) এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার বিকেল ৩টার দিকে সদর উপজেলার চরপক্ষীমারী এলাকায় শেরপুর-জামালপুর সড়কের ব্রহ্মপুত্র সেতুর নিচ থেকে ওই লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

শিশু আরাফাত নন্দীরজোত পোড়ার দোকান এলাকার আব্দুল মোতালেবের ছেলে। সে স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় পড়তো। তবে একইসাথে নিখোঁজ তার মামা সিয়াম মিয়ার (১০) কোনো খোঁজ মেলেনি। সিয়াম পার্শ্ববর্তী রামেরচর গ্রামের আকবর আলীর ছেলে। তাঁর সন্ধানে দমকল বিভাগের ডুবুরিরা পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদে অনুসন্ধান শুরু করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শিশু আরাফাত শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে নিজবাড়ী নন্দির জোত থেকে তার মামা সিয়ামের সাথে পার্শ্ববর্তী রামেরচর গ্রামের নানাবাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে বের হয়। কিন্তু রাতেও সে নানাবাড়ি না পৌঁছানোয় তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে পরিবারের লোকজন। পরে শনিবার বেলা ২টার দিকে চরপক্ষীমারী এলাকায় ব্রহ্মপুত্র সেতুর নিচে এক শিশুর লাশ দেখতে পেয়ে ৯৯৯-এ ফোন দেয় স্থানীয়রা। বিকাল ৩টার দিকে সদর থানা পুলিশ আরাফাতের লাশ উদ্ধার করে।

এদিকে, আরাফাতের স্বজনরাও খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ শনাক্ত করে। শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ হান্নান মিয়া ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ অন্যান্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। নিহত আরাফাতের লাশের সুরতহাল তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, শিশু আরাফাতের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। 



সাতদিনের সেরা