kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

রুটি-ডিম খাওয়ার আবদার, মা দোকান থেকে ফিরে দেখেন আড়ায় ঝুলছে মেয়ে!

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

৩১ মার্চ, ২০২১ ১৪:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রুটি-ডিম খাওয়ার আবদার, মা দোকান থেকে ফিরে দেখেন আড়ায় ঝুলছে মেয়ে!

রুটি আর ডিম দিয়ে সকালের নাস্তা করবে বলে মায়ের কাছে আবদার করে হাফসা। মেয়ের আবদার মেটাতে বাড়ির পাশের একটি দোকানে ডিম-রুটি কিনতে যান মা রিনা বেগম। ১০-১৫ মিনিটের ব্যবধানে ঘরে ফিরে দেখেন মেয়েটি তার পড়ার কক্ষে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আড়ার সঙ্গে ঝুলছে। এসময় হতভম্ব মায়ের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন। আড়া থেকে নামানোর আগেই পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে পরপারে চলে যায় স্কুলছাত্রী হাফসা (১৫)। 

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলা খোন্তকাটা ইউনিয়নের পশ্চিম গোলবুনিয়া গ্রামের ঘটে মর্মান্তিক এই ঘটনা। ওই গ্রামের আ. জলিল হাওলাদারের তিন মেয়ের মধ্যে সবার বড় হাফসা। উপজেলার আমড়াগাছিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের কারিগরি শাখায় দশম শ্রেণিতে পড়ত সে। 

খবর পেয়ে শরণখোলা থানা পুলিশ সকাল ১১টার দিকে ওই বাড়ি থেকে মেয়েটির মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। ওই মেয়ের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটিও জব্দ করেছে পুলিশ। প্রেমঘটিত কোনো কারণে আত্মহত্যা করতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। 

মেয়ের মা রিনা বেগম আহাজারি করতে করতে বলেন, মেয়ে কৌশল করে আমাকে ডিম-রুটি আনতে বাইরে পাঠিয়েছে বুঝতে পারলে আমি যেতাম না। ও এই কাণ্ড ঘটাতেই ডিম-রুটি খাওয়ার বাহানা করেছে।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান বলেন, মেয়েটির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। জব্দকৃত মোবাইলের সূত্র ধরে মৃত্যু রহস্য উদ্ঘাটনের চেষ্টা চলছে।



সাতদিনের সেরা