kalerkantho

বুধবার । ১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ এপ্রিল ২০২১। ১ রমজান ১৪৪২

ভুল চিকিৎসায় যুবকের মৃত্যুর অভিযোগে ক্লিনিক ভাঙচুর

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

২৮ মার্চ, ২০২১ ১৬:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভুল চিকিৎসায় যুবকের মৃত্যুর অভিযোগে ক্লিনিক ভাঙচুর

নোয়াখালীর প্রাইম হাসপাতালে নামের একটি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমন অভিযোগে হাসপাতালে ভাঙচুর চালায় নিহতের স্বজন ও স্থানীয়রা। আজ রবিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। মৃত রোগী বিটন রহমান (৩০) কবিরহাট উপজেলার নতুন সাহাজিরহাটের উত্তমপুর লামছি গ্রামের আলহাজ মফিজ মিয়ার ছেলে।

এদিকে এ ঘটনার সংবাদ সংগ্রহে গেলে রবিবার দুপুরে সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালায় ওই হাসপাতালের মালিক পক্ষের লোকজন ও তাদের সন্ত্রাসী বাহিনী। এ সময় স্থানীয় তিন সংবাদকর্মী হামলার শিকার হয়, ক্যামেরাও ভাঙচুর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিহতের বড় বোন লাইলী বেগম বলেন, শনিবার বিকেল ৫টায় আমার ভাইকে মেরুদণ্ড অপারেশনের জন্য প্রাইম হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। প্রায় তিন ঘণ্টা অপারেশন হয়েছে বলে জানায় হাসপাতালের লোকজন। রাত ১২টা বাজলেও কর্তৃপক্ষ জানায়, আমার ভাইয়ের জ্ঞান ফিরে নাই। এরপর ভোর সাড়ে ৫টায় বলে, আমার ভাই নাকি মারা গেছে। আমাদের ধারণা- আমার ভাই তাদের ভুল চিকিৎসার জন্য প্রাণ হারিয়েছে।

নিহতের ভাই জহির উদ্দিন বলেন, ডাক্তারের ভুল অপারেশনের কারণে আমার ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। আমরা এই হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করছি।

এদিকে ভোর ৫টায় রোগীর মৃত্যু সংবাদ পেয়ে তার স্বজনরা বিক্ষুদ্ধ হয় এবং হাসপাতাল ভাঙচুর করে।

প্রাইম হাসপাতালের সন্ত্রাসীদের লাঞ্ছনার শিকার কলকাতা টিভির নোয়াখালী প্রতিনিধি শরীফ খান জানায়, যখন হাসপাতালের লোকজন ও রোগীর লোকজন বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে, তখন চিত্রধারণের সময় হাসপাতালের লোকজন আমার ওপর চড়াও হয়। মোবাইল ক্যামেরা কেড়ে নিয়ে ভেঙে ফেলে। এ সময়ে তাদের হামলায় আরো দুজন সংবাদকর্মী নাজেহাল হয়।

প্রাইম হাপাতালের এজিএম (ফিন্যান্স অ্যান্ড অ্যাডমিন) শিপন সেন জানান, অপারেশন করার আগে রোগীর স্বজন থেকে মুচলেকা নেওয়া হয়। রোগীর অপরেশন সফলভাবে সম্পন্ন হলেও জ্ঞান না ফেরা এবং রোগীর অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। সাংবাদিকদের লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় ক্ষমা চান তিনি।

সুধারাম মডেল থানার ওসি মো. শাহেদ উদ্দিন বলেন, পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে। রোগীর স্বজনরা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা