kalerkantho

রবিবার । ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৩ জুন ২০২১। ১ জিলকদ ১৪৪২

অসহায় সেই বিধবার পাশে ওসি-ইউপি চেয়ারম্যান

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২৪ মার্চ, ২০২১ ২১:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অসহায় সেই বিধবার পাশে ওসি-ইউপি চেয়ারম্যান

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে সেই অসহায় বিধবা মর্জিনা খাতুনের (৭০) পাশে দাঁড়িয়েছেন গফরগাঁও থানার ওসি অনুকুল সরকার ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শামছুল আলম খোকন।

আজ বুধবার দুপুরে পুড়িয়ে দেওয়া ঘরের পাশে দাঁড়িয়ে মর্জিনা খাতুনকে আর্থিক সহায়তা করেন তারা। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে পুলিশ অফিসার ও স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন। গতকাল মঙ্গলবার কালের কণ্ঠে এ সংক্রান্ত একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

উপজেলার গফরগাঁও ইউনিয়নের দুগাছিয়া গ্রামের মর্জিনা খাতুন প্রায় ২০ বছর যাবত প্রতিবেশী ডা. মোশারফ হোসেনের ব্রহ্মপুত্র তীরে রাস্তার পাশের জমিতে খোপড়ি ঘর করে স্বামীকে নিয়ে বসবাস করতেন। প্রায় ৫ বছর পূর্বে স্বামী আব্দুল জলিল মারা যাওয়ার পর তিনি একাই বসবাস করছিলেন। দুই সন্তান থাকলেও তারা চাঁপাইনবাবগঞ্জ থাকে। কিন্তু মর্জিনার ভরণ-পোষণ বা খোঁজ খবর নেয় না। তাই বাধ্য হয়ে মর্জিনা খাতুন অন্যের বাড়িতে কাজ, ভিক্ষা করে জীবন চালান। সম্প্রতি মর্জিনা খাতুনের নেশাগ্রস্ত ছোট ভাই নূরু মিয়া ঘরে এসে নেশা করার সময় মর্জিনা খাতুন এতে বাধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নূরু মর্জিনার একমাত্র বসতঘরটি পুড়িয়ে দেয়। পড়ে মর্জিনা প্রতিবেশীর বাড়ির বারান্দায় আশ্রয় নেন।

ইউপি চেয়ারম্যান শামছুল আলম খোকন বলেন, আমাদের নেতা সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেলের সাথে কথা বলে মর্জিনাকে আর্থিক সহায়তাসহ মেঝে পাকা নতুন টিনের একটি বসত ঘর ও পুরনো টিন দিয়ে একটি রান্না ঘর করে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছি।

গফরগাঁও থানার ওসি অনুকুল সরকার বলেন, এ ঘটনায় আটক নূরুর বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে এবং ময়মনসিংহ পুলিশ সুপার স্যারের নির্দেশে অসহায় মর্জিনাকে আর্থিক সহায়তা করেছি। আর যাতে মর্জিনার ক্ষতি না হয় সে জন্য থানা প্রশাসনের দৃষ্টি সব সময় থাকবে। 



সাতদিনের সেরা