kalerkantho

শনিবার । ২৫ বৈশাখ ১৪২৮। ৮ মে ২০২১। ২৫ রমজান ১৪৪২

রাতে সেতুর নীচে মাটি খনন, বিকেলে পিলারে ফাটল

পাঁচবিবি-গোবিন্দগঞ্জ সড়কে যান চলাচল বন্ধ

পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি   

২২ মার্চ, ২০২১ ১১:৩৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাতে সেতুর নীচে মাটি খনন, বিকেলে পিলারে ফাটল

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলা থেকে গাইবান্দার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় যাতায়াতের একমাত্র সড়কের তুলশি গঙ্গা নদীর উপর ফেছকা ঘাট এলাকায় ৪২ মিটার লম্বা সেতুর নীচে পিলারের গোড়া ফেটে সেতু দেবে যাওয়ায় যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন।

রবিবার (২১ মার্চ) বিকেলে হঠাৎ পিলারের গোড়া ফাটতে থাকায় সেতুটি দেবে যায়। সন্ধ্যায় সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ করা হয়।

শনিবার রাতে নদী খনন প্রকল্পের ভেকু মেশিন দিয়ে সেতুর নীচে গভীর ভাবে মাটি কাটায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে ঘটনা স্থলে থাকা উপজেলা প্রকৌশলী ও এলাকাবাসী দাবী করেছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের গাফিলতি হলেও তাদের দাবি সেতুটি অনেক আগের হওয়ায় ফাটল দেখা দিয়েছে।

জানা যায় জয়পুরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে তুলশি গঙ্গা নদী খনন প্রকল্পের তিনটি ভেকু মেশিন দিয়ে শনিবার সন্ধ্যায় সেতুর নীচে তিনটি পিলারের গোড়া ঘেষে মাটি খনন করে দায়সারাভাবে সিমেন্টের ব্লক পানিতে ফেলে দেওয়া হয়। রবিবার বিকেলে হঠাৎ পিলারে গোড়া ফাটতে শুরু করলে সেতুটি দেবে যায়। ঝুকি নিয়ে হালকা যানবাহন চলাচল করলে খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মুনিরুল শহীদ মন্ডল ও উপজেলা প্রকৌশলি আব্দুল কাইয়ুম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পানি উন্নয়ন বোর্ডের অবহেলার অভিযোগ তোলেন। রবিবার সন্ধ্যায় সেতুর দুই দিকে বন্ধ করে দিয়ে চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।

উপজেলা চেয়ারম্যান মুনিরুল শহিদ বলেন, 'পানি উন্নয়ন বোর্ডের গাফিলতির কারণে সেতুটির বড় ধরনের ক্ষতি হলো। উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল কাইয়ুম বলেন, পিলারের গোড়া থেকে মাটি কাটার ফলে পিলার ফাটল ধরে সেতুটি দেবে গেছে।

জয়পুরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ মাহবুবুর রহমান দাবী করেন ব্রিজটি অনেক পুরাতন তাই মাটি কাটার কারনে সেটি ভাঙ্গেনি।

নদী খনন প্রকল্পের দায়িত্বে থাকায় সহকারী প্রকৌশলী মোঃ জাহিদুল ইসলাম জানান আমি সেতু এলাকায় গিয়ে তারপর আপনাকে বলতে পারব কী হয়েছে।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় যাওয়ার প্রধান সড়ক বন্ধ হওয়ায় তিনটি ইউনিয়নের বাসিন্দাদের যাতায়াত, পণ্য পরিবহনে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।



সাতদিনের সেরা