kalerkantho

শুক্রবার । ১১ আষাঢ় ১৪২৮। ২৫ জুন ২০২১। ১৩ জিলকদ ১৪৪২

দল আওয়ামী লীগ, নির্বাচনী মাঠে তারা প্রতিদ্বন্দ্বী

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

১৮ মার্চ, ২০২১ ২০:৪৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দল আওয়ামী লীগ, নির্বাচনী মাঠে তারা প্রতিদ্বন্দ্বী

বায়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমল হোসেন মুক্তা ডানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মিলন।

বাগেরহাটের শরণখোলায় একই ইউনিয়নে প্রার্থী হয়েছেন আওয়ামী লীগের শীর্ষ দুই নেতা। রায়েন্দা ইউনিয়নে প্রথমবার দলীয় প্রতীক নৌকা পেয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমল হোসেন মুক্তা। শেষ দিন বৃহস্পতিবার একই ইউনিয়নে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মিলন।

তবে, শেষ পর্যন্ত নির্বাচনী মাঠে লড়বেন কিনা তা নির্দিষ্ট করে জানাননি প্রতিদদ্বন্দ্বী প্রার্থী আসাদুজ্জামান মিলন। তিনি বলেন, আমি পর পর দুইবার এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। বর্তমানে আমি দলীয় মনোনয়নে নির্বাচিত হয়ে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছি। মাঠ পর্যায়ে আমার সুনাম ও সাধারণ ভোটারদের কাছে আমার গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। তাই এবার দল আমাকে মনোনয়ন না দিলেও কর্মীদের চাপে আমি মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি। এখন পরিস্থিতি বুঝে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

অপরদিকে, উপজেলা চারটি ইউনিয়নের মধ্যে ৪নম্বর সাউথখালীতে নৌকার বিপক্ষে বিদ্রোহী বা অন্য কেউ মানোনয়ন প্রত্র জমা না দেওয়ায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মো. মোজাম্মেল হোসেন।

উপজেলা সির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ১৮ মার্চ মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত চারটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের চার জন, একই দলের বিদ্রোহী ছয় জন, ইসলামী আন্দোলনের দুই জনসহ মোট ১২ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এদের মধ্যে ১নম্বর ধানসাগর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মো. মাইনুল ইসলাম টিপু, ইসলামী আন্দোলনের মো. রুহুল আমিন, বিদ্রোহী প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা মো. বাবুল আকন ও মো. মহিম আকন। 

২নম্বর খোন্তাকাটা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মো. জাকির হোসেন খান মহিউদ্দিন, ইসলামী আন্দোলনের আবুল হাসান গাজী, বিদ্রোহী শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. মেজবা উদ্দিন খোকন, যুবলীগের সাবেক সভাপতি আবুল হোসেন নান্টু ও যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. হাসানুজ্জামান জোমাদ্দার।

৩নম্বর রায়েন্দা ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়নপ্রাপ্ত উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমল হোসেন মুক্তা এবং তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলন। 

৪নম্বর সাউথখালী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত বর্তমান চেয়ারম্যান মো. মোজাম্মেল হোসেন একমাত্র প্রার্থী হিসেবে  মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এ ছাড়া চারটি ইউনিয়নে ৫৯ জন নারী সংরক্ষিত এবং সাধারণ কোটায় ১৬৬ জন প্রার্থী তাদের সদস্য পদে মনোনয়ন প্রত্র জামা দিয়েছেন।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা অঞ্জন সরকার জানান, সাউথখালী ইউনিয়নে অন্য কোনো প্রার্থী না থাকায় মোজাম্মেল হোসেনই একমাত্র প্রার্থী। ১৯ মার্চ যাচাই-বাছাইয়ে টিকলে ২৪ মার্চ প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিনে তাকে বেসরকারিভাবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে। 

দলের সাধারণ সম্পাদক প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্ত প্রার্থী মো. আজমল হোসেন মুক্তা বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করেছেন। এখন দলের সিদ্ধান্তের বাইরে কেউ প্রার্থী হলে সেটা দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের শামিল।



সাতদিনের সেরা