kalerkantho

বুধবার । ৮ বৈশাখ ১৪২৮। ২১ এপ্রিল ২০২১। ৮ রমজান ১৪৪২

নির্যাতিত শিক্ষার্থীর বাবা-মা ক্ষমা করলেও বহিষ্কার হলেন সেই মাদরাসা শিক্ষক

অনলাইন ডেস্ক   

১০ মার্চ, ২০২১ ১৬:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নির্যাতিত শিক্ষার্থীর বাবা-মা ক্ষমা করলেও বহিষ্কার হলেন সেই মাদরাসা শিক্ষক

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে মারকাযুল কুরআন ইসলামিক একাডেমির হেফজ বিভাগের এক শিশু শিক্ষার্থীকে মায়ের কাছে যাওয়ার অপরাধে নির্মমভাবে পিটিয়েছে মাদরাসা শিক্ষক। নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে প্রতিবাদের ঝড় উঠে। এ ঘটনায় নির্যাতনকারী শিক্ষককে বহিষ্কার করা হয়েছে। অন্যদিকে সন্তানকে নির্যাতনকারী শিক্ষককে ক্ষমা করে দিয়েছেন বলে লিখিত জানিয়েছেন শিক্ষার্থীর বাবা-মা।

এর আগে মঙ্গলবার (৯ মার্চ) থেকে হাজার হাজার মানুষ ওই ভিডিও শেয়ার করেন। এদিকে এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাত ১টার দিকে হাটহাজারী পৌরসভার ফটিকা গ্রামের মারকাজুল কোরআন ইসলামিক একাডেমিতে অভিযান চালিয়ে ওই মাদরাসার হেফজ বিভাগের শিক্ষক হাফেজ মো. ইয়াহইয়াকে আটক করে পুলিশ।

হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন জানান, মাদরাসায় গিয়ে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী, অভিযুক্ত শিক্ষক, মাদরাসার পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে কথা বলা হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষককে তাৎক্ষণিকভাবে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়ছে। তাঁকে হাটহাজারীর কোনো মাদরাসায় শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ না দেওয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয়।

তবে ওই শিক্ষার্থীর বাবা-মা অভিযুক্ত ওই মাদরাসাশিক্ষককে ক্ষমা করে দিয়েছেন মর্মে একটি লিখিত বক্তব্য দেওয়ায় প্রশাসন এ ঘটনায় দোষী শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেনি।

শিশুটির মা-বাবা ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক কোনও ব্যবস্থা নিতে রাজি হননি জানিয়ে ইউএনও বলেন, 'অভিযুক্ত মাদরাসা শিক্ষককে আটক করার পরপরই নির্যাতিত শিশুটির মা-বাবা আমার কাছে এসে কান্নাকাটি শুরু করেন। দুইজন আমার অফিসে এসে ওই শিক্ষককে ছেড়ে দিতে অনুরোধ করেন। তারা ওই শিক্ষককে ক্ষমা করে দিয়েছেন জানিয়ে মামলা করবেন না বলে জানান। আমি তাদের অনেক বোঝানোর পরও তারা মামলা করতে রাজি হননি। উল্টো তারা ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিতে আমাকে লিখিতভাবে অনুরোধ করেছেন। পরে আমরা ওই শিক্ষককে ছেড়ে দিয়েছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা