kalerkantho

সোমবার । ৬ বৈশাখ ১৪২৮। ১৯ এপ্রিল ২০২১। ৬ রমজান ১৪৪২

সেই ময়ূরটির ঠাঁই হলো রামসাগর জাতীয় উদ্যানে

অনলাইন ডেস্ক   

৬ মার্চ, ২০২১ ১৩:০৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সেই ময়ূরটির ঠাঁই হলো রামসাগর জাতীয় উদ্যানে

আহত ময়ূরটিকে উদ্ধার করে পুলিশ। ছবি: সংগৃহীত

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় আহত অবস্থায় উদ্ধার হওয়া বিপন্ন প্রজাতির ময়ূরটিকে চিকিৎসা দেওয়ার পর রামসাগর জাতীয় উদ্যানে ছাড়া হয়েছে। বর্তমানে সুস্থ অবস্থায় রামসাগর উদ্যানে শোভা ছড়াচ্ছে সে।

শুক্রবার (৫ মার্চ) সন্ধায় বোদা উপজেলার চন্দনবাড়ি ইউনিয়নের শিকারপুর নামক এলাকা থেকে ময়ূরটিকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বোদা থানা পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বিকেলে উড়তে উড়তে ময়ূরটি একটি গাছে আশ্রয় নেয়। ময়ূর দেখে স্থানীয় কয়েকজন যুবক ঢিল ছুঁড়ে, বাঁশ দিয়ে পাখিটিকে আঘাত করতে থাকে। এক পর্যায়ে ময়ূরটি গাছ থেকে নিচে পড়ে যায়। স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে বোদা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত ময়ূরটিকে উদ্ধার করে। পরে বনবিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বন্যপ্রাণী আলোক চিত্রী ফিরোজ আল সাবা জানান, এই প্রজাতির ময়ূর বাংলাদেশে বিলুপ্ত হয়ে গেছে। এটি ভারত থেকে এসেছে। ইন্ডিয়ান পি ফাউল বা দেশি ময়ূর নামে পরিচিত এই ময়ূর আরো বেশ কয়েকবার বাংলাদেশে এসেছে। এরা আমাদের অতিথি।

তিনি আরো বলেন, পঞ্চগড় হিমালয়ের খুব কাছের একটি সমতল অঞ্চল। এই জেলার কাছেই রয়েছে  ভারত, নেপাল, ভূটান এবং চীন। এসব দেশ থেকে নানা প্রজাতির পাখি ও প্রাণি এই জেলায় আসছে। তাই এই জেলায় আরো বনভূমি সৃষ্টি করা দরকার।

বোদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, ময়ূরটির প্রজাতি প্রায় বিপন্ন। স্থানীয়দের আঘাতে আহত হলে দ্রুত তাকে উদ্ধারকে থানায় নিয়ে আসি। পরে বন বিভাগকে জানানো হলে বন বিভাগের সদস্যরা ময়ূরকে থানায় প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা প্রদান করেন। 

এদিকে ফরেস্ট রেঞ্জ অফিসার (বোদা-দেবীগঞ্জ) মধু সুদন বর্মণ জানান, ময়ূরটিকে চিকিৎসা দিয়ে রামসাগর জাতীয় উদ্যানে পাঠানো হয়েছে । ময়ূরটি এখন ভালো আছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা