kalerkantho

রবিবার। ৫ বৈশাখ ১৪২৮। ১৮ এপ্রিল ২০২১। ৫ রমজান ১৪৪২

ধানের শীষে ভোট না দেওয়া সেই রফিকসহ ৬ বিএনপি নেতা বহিষ্কার

বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি   

৫ মার্চ, ২০২১ ২০:০৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ধানের শীষে ভোট না দেওয়া সেই রফিকসহ ৬ বিএনপি নেতা বহিষ্কার

বিএনপির সভাপতি ঠিকাদার রফিকুল ইসলাম

বরিশালের বানারীপাড়ায় পৌরসভা নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে ভোট না দিয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর নারকেল গাছ প্রতীকে ভোট দেওয়ার অভিযোগে ২নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ঠিকাদার রফিকুল ইসলামসহ ৬ বিএনপি নেতাকে দল থেকে অব্যাহতি দেওয়াসহ বহিষ্কার করা হয়েছে।

বহিষ্কারকৃতরা হলেন পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আনিস মৃধা, ৫নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ও সাবেক পৌর কাউন্সিলর মাসুম বিল্লাহ মনু, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন মৃধা, অব্যাহতি প্রাপ্তরা হলেন ২নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হোসেন ও ৯নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক কে এম শফিকুল আলম জুয়েল।

১৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত বানারীপাড়া পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ না করা ও ক্ষমতাসীন দলের সঙ্গে সখ্যতা রেখে চলাসহ দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থী বিভিন্ন কর্মকণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের এ বহিষ্কার করা ও অব্যহতি দেওয়া হয়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বানারীপাড়া পৌর বিএনপির সভাপতি আহসান কবির নান্না হাওলাদার ও সাধারণ সম্পাদক আ. সালাম সাক্ষরিত এক পত্রে বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানানো হয়।

এদের মধ্যে পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি রফিকুল ইসলাম আওয়ামী লীগ সমর্থক এক কাউন্সিলরের সখ্যতা গড়ে ঠিকাদারী লাইসেন্স ব্যবহার করে স্কুল, রাস্তাঘাট ও ব্রিজ কালভার্টসহ কোটি কোটি টাকার বিভিন্ন সরকারি কাজ কব্জা করেন এবং বানারীপাড়া বন্দর বাজারে বেশ কয়েকটি ডিসিআর এর চান্দিনা ভিটি তার নামে-বেনামে নিয়ে সেখানে পাকা দোকান ঘর নির্মাণ করেন। এ ছাড়া সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ওই জনপ্রতিনিধির বাড়ির সামনে সম্পত্তি ক্রয় করে তিনি রাস্তা ও ড্রেনের একাংশ দখল করে আলিশান বহুতল বাড়ি নির্মাণ করেন।

এদিকে ক্ষমতায় থেকেও যেখানে বহু নিবেদিত প্রাণ ত্যাগী ও নির্যাতিত আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী বঞ্চিত ও অবহেলিত হয়ে অর্থ কষ্টে দিনাতিপাত করছেন সেখানে একজন বিএনপি নেতা হয়ে রফিকুল ইসলাম কিভাবে কোটি কোটি টাকার সরকারি ঠিকাদারী কাজ করে রাতারাতি অঢেল বিত্ত-ভৈববের মালিক বনে গেলেন এনিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের মাঝে চরম ক্ষোভ ও প্রশ্ন রয়েছে।

অপরদিকে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত বানারীপাড়া পৌরসভার নির্বাচনে রফিকুল ইসলাম ২নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি হওয়া সত্ত্বেও বিএনপির মেয়র প্রার্থী রিয়াজ মৃধার নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জিয়াউল হক মিন্টু ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও কাউন্সিলর প্রার্থী মনির হোসেনের পক্ষে নির্বাচন করায় বিএনপির স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। নির্বাচনে নিজ দলের ধানের শীষ প্রতীকে ভোট না দিয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর নারকেল গাছ প্রতীকে প্রকাশ্যে ভোট দেওয়ায় ভোট কেন্দ্রে তিনি শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা