kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৯ বৈশাখ ১৪২৮। ২২ এপ্রিল ২০২১। ৯ রমজান ১৪৪২

খুনের মামলায় দুই ইউপি সদস্য কারাগারে

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি    

৫ মার্চ, ২০২১ ১২:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



খুনের মামলায় দুই ইউপি সদস্য কারাগারে

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার রানীগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি সদস্য আব্দুল মালেক এবং উপজেলা কৃষকলীগের সহসভাপতি ও ইউপি সদস্য মো. ইয়াকুত মিয়া তালুকদারকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। একটি হত্যা মামলার চার্জশিট আদালতে গৃহীত হওয়ায় এবং গতকাল বৃহস্পতিবার আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আদালত তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করেন। 

জানা যায়, উপজেলার রানীগাঁও ইউনিয়নের আতিকপুর গ্রামের প্রবাসী আব্দুল কদ্দুছ (৩০) ২০১৮ সালে দেশে ফিরে আসার পর তার স্ত্রী মাফিয়া খাতুনের সঙ্গে বিদেশ থেকে তার পাঠানো ১৫ লাখ টাকার হিসাব নিয়ে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। এ নিয়ে মাফিয়া খাতুন ২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবর হবিগঞ্জ নারী শিশু নির্যাতন আদালতে কদ্দুছ মিয়াকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলা আপস মীমাংসার কথা বলে রানীগাঁও ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেকসহ কয়েকজন ওই বছরের ৩ নভেম্বর রাতে আ. ছোবহান মিয়ার বাড়িতে একটি সালিস বৈঠক বসান।

সেখানে আব্দুল কদ্দুছ হাজির হলে সেখানে তাকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে হত্যা করে লাশ একটি পেয়ারাগাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়। পরদিন চুনারুঘাট থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে এবং পোস্টমর্টেম শেষে আত্মীয়-স্বজনের কাছে হস্তান্তর করে। 

এ নিয়ে নিহত কুদ্দুসের ভাই হোসেন আলী বাদী হয়ে নিহতের স্ত্রী মাফিয়া খাতুনসহ পাঁচজনের নামে আদালতে মামলা দায়ের করেন। প্রথমে চুনারুঘাট থানা পুলিশ এ মামলার তদন্ত করে। পরবর্তী সময়ে দীর্ঘ তদন্ত শেষে  সিআইডি এ মামলার চার্জশিট প্রদান করে। 

এ চার্জশিটে নিহতের স্ত্রী মাফিয়া খাতুন, ইউপি সদস্য আবদুল মালেক, ইউপি সদস্য ইয়াকুত মিয়া তালুকদারসহ পাঁচজনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। 

বৃহস্পতিবার সিনিয়র চিফ জুডিশিয়াল বিচারিক আদালতে আবদুল মালেক ও ইয়াকুত মিয়া তালুকদার হাজিরা দিতে গেলে তাদের জামিন নামঞ্জুর করে আদালত তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা