kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৯ বৈশাখ ১৪২৮। ২২ এপ্রিল ২০২১। ৯ রমজান ১৪৪২

এবার টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে ঢুকছে ভয়ংকর মাদক ‘আইস’

প্রথম চালানেই ২ কেজি উদ্ধার

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার    

৪ মার্চ, ২০২১ ২৩:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এবার টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে ঢুকছে ভয়ংকর মাদক ‘আইস’

কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে এবার আসছে ভয়ংকর মাদক ‘আইস’। ক্রিষ্টাল মেথ বা আইসের একটি বড় চালান এই প্রথমবার ধরা পড়েছে টেকনাফ সীমান্তে। গতকাল বুধবার বিকালে ২ কেজি আইস সহ মো: আবদুল্লাহ নামের এক জনকে আটক করে র‌্যাব-১৫ এর সহযোগিতায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। বাংলাদেশে এই প্রথম আইসের এত বড় চালান ধরা পড়ল। সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে ভয়ংকর মাদক এই ‘আইস’। মাদক জগতে ‘ইয়াবার বাবা’ হিসাবেও পরিচিত এটি বলে জানিয়েছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

আইচ হচ্ছে মাদক জগতের সবচেয়ে ব্যয়বহুল আইটেম। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় আইচের বড় বাজার সৃষ্টির জন্য মাদক কারবারি গোষ্টি বেশ কিছুদিন ধরে ঢাকা-টেকনাফের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরির কাজ করে আসছে। এমন তথ্য পেয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের টেকনাফের বিশেষ জোনের কর্মকর্তারা অভিযান চালান।

র‌্যাব-১৫ এর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক আবদুল্লাহ জানান, ঢাকার একটি গ্রুপ টেকনাফে তৎপর রয়েছে আইসের চালান এ পথে ঢাকায় পৌছানোর। চালানটি জাদিমুরা ২৬ নম্বর শালবাগান রোহিঙ্গা শিবির থেকেই পাচারকারিরা বের করে এনেছিল। এতে সন্দেহ করা হচ্ছে, আইসের চালান রোহিঙ্গা শিবিরকে কেন্দ্র করে পরিচালিত হচ্ছে। আটক আবদুল্লাহ আরো জানায়, তার পলাতক ভাই আবদুর রহমান ধরা পড়া চালান নিয়ে সবকিছুই জানে।

ইউরোপের বাজারেই সবচেয়ে বেশী দামী মাদক এই আইস। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর টেকনাফ বিশেষ জোনের উপ পরিচালক সিরাজুল মোস্তফা জানিয়েছেন, থাইল্যান্ড নিয়ন্ত্রণ করে আইসের বাজারটি। থাইল্যান্ড থেকে ইউরোপের বাজারে আইসের চালান প্রবেশের ক্ষেত্রেও অত্যন্ত ব্যয় বহুল। এ কারনে ইউরোপের বাজারে আইসের দাম সবচেয়ে বেশী। তিনি আরো জানান, ইউরোপে এক কেজি আইসের মূল্য এক মিলিয়ন অর্থাৎ ১০ লাখ ডলার। যা বাংলাদেশের বাজারে কেজি প্রতি আট কোটি টাকারও বেশী। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা