kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৯ বৈশাখ ১৪২৮। ২২ এপ্রিল ২০২১। ৯ রমজান ১৪৪২

হাবিলাসদ্বীপে সুপেয় পানি নিশ্চিতে হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নের দাবি

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৪ মার্চ, ২০২১ ১৯:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাবিলাসদ্বীপে সুপেয় পানি নিশ্চিতে হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নের দাবি

চট্টগ্রামের পটিয়ার হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নে শিল্প কারখানা কর্তৃক ভূগর্ভস্হ পানি উত্তোলন ও পরিবেশ দূষণ বন্ধে উচ্চ আদালতের রায় বাস্তবায়নসহ সুপেয় পানি সরবরাহকরণের দাবিতে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা)সহ এলাকার কয়েকটি সামাজিক সংগঠন মানববন্ধন করেছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পাচুরিয়ায় আয়োজিত এ মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, হাবিলাসদ্বীপে বেশ কয়েকটি পানি শোধনাগার ইন্ডাস্ট্রি রয়েছে। এ ইন্ডাস্ট্রিগুলোর মধ্যে ৮টিতে গভীর নলকূপ বসিয়ে পানি উত্তোলন করে ব্যবসা করায় ইউনিয়নের হুলাইন, হাবিলাসদ্বীপ, চরকানাই ও পাচুরিয়া গ্রামের মাটির নিচের পানির স্থর নিচে নেমে গেছে। ফলে গ্রামগুলোর ৩০০টি নলকূপ অকেজো হয়ে পড়ে আছে। এতে পানির সংকট সৃষ্টি হলে সুপেয় পানির প্রাপ্যতা নিশ্চিতে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ (বেলা) ২০১৫ সালে হাইকোর্টে রিট করেন।

মামলাটির চূড়ান্ত শুনানি শেষে গত ২৬ নভেম্বর ২০১৯ ভূগর্ভস্থ পানি উত্তোলনের ক্ষেত্রে একটি নিরাপদ স্তর নির্দিষ্ট করা, গ্রামবাসীকে অব্যাহতভাবে সুপেয় পানি সরবরাহসহ ১৩ টি সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা ও ৪ গ্রামকে বাংলাদেশ পানি আইন ২০১৩ এর ধারা ১৭ অনুযায়ী পানি সংকাটাপন্ন এলাকা ঘোষণার বিষয়ে তিন মাসের মধ্যে সিদ্ধান্ত দিয়ে রায় প্রদান করেন।

স্থানীয় হাবিলাসদ্বীপ ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বলেন, হাইকোর্টের রায়ের পরে বর্তমানে অনেক প্রতিষ্ঠান তা মেনে চলায় পানির স্তর স্থিতাবস্থায় রয়েছে। তবে কিছু প্রতিষ্ঠান গোপনে পানি উত্তোলন করায় পানির স্তর আরো নিচে নেমে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নে প্রশাসনকে সাথে নিয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

এতে আরো বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট মুজিবর রহমান, অ্যাডভোকেট জিয়া উদ্দিন চৌধুরী, ইউনুচ খান জসিম, মুছা খান, আশরাফ উদ্দিন আহমদ, হাসানুজ্জমান, বেলার সমন্বয়ক মামুন, নুরুল হক প্রমুখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা