kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ বৈশাখ ১৪২৮। ১০ মে ২০২১। ২৭ রমজান ১৪৪২

অধ্যক্ষের অপসারণ চেয়ে শিক্ষকদের বিক্ষোভ, স্মারকলিপি

বোচাগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২১:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অধ্যক্ষের অপসারণ চেয়ে শিক্ষকদের বিক্ষোভ, স্মারকলিপি

দিনাজপুরের সেতাবগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মনজুর আলমের বিরুদ্ধে প্রায় তিন কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তার অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন ওই কলেজের শিক্ষক কর্মচারীরা। এর আগে একই দাবিতে মঙ্গলবার দুপুর থেকে কলেজ কার্যালয়ে অধ্যক্ষকে অবরুদ্ধ করে রাখেন তারা।

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টায় সেতাবগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষক কর্মচারীরা বিক্ষোভ মিছিল করেন। পরে তারা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে অপসারণসহ ন্যায় বিচারের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, ২০১৪ জুন হতে ২০২০ পর্যন্ত সেতাবগঞ্জ সরকারি কলেজের যাবতীয় আয়-ব্যয়ের হিসাবের জন্য একটি নিরীক্ষা টিম গঠন করা হয়। গত ৮ ডিসেম্বর ওই নিরীক্ষা দলটি কলেজের যাবতিয় অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা, অনুসন্ধান ও সরবরাহকৃত কলেজের হিসাবের পর্যবেক্ষণ ও অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষাপূর্বক একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন ওই কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও বোচাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, কলেজের অধ্যক্ষ মো. মনজুর আলম ও অফিস সহকারী নির্মল চন্দ্র দেব শর্ম্মার যোগসাজশে কলেজের রশিদ ব্যবহার, ফরমপূরণ এবং ব্যাংক রশিদের মাধ্যমে সর্বমোট ২ কোটি ৯১ লক্ষ ৭০ হাজার ১৭৮ টাকা আত্মসাৎ করেন।

জানতে চাইলে কলেজের শিক্ষক সমিতির সম্পাদক প্রভাষক মো. আক্কাস আলী বলেন, কলেজের দুর্নীতিগ্রস্ত অধ্যক্ষ মো. মনজুর আলম ও অফিস সহকারী নির্মল চন্দ্র দেবশর্ম্মার শীঘ্রই অপসারণসহ আইনানুগ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য দাবি জানাচ্ছি।

অভিযুক্ত অধ্যক্ষ মনজুর আলমের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ হলে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্য নয়। আমি কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি বরাবরে পুন অডিটের আবেদন করেছি। 

অধ্যক্ষর বিষয়ে জানতে চাইলে ওই কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল বলেন, উপরোক্ত দুর্নীতির বিষয়ে অধ্যক্ষর বিষয়ে ওই কলেজের শিক্ষক কর্মচারী সমিতির পক্ষ থেকে স্মারকলিপি পেয়েছি। তারা তাদের গঠিত নিরীক্ষা প্রতিবেদন আমাকে দিয়েছেন। বিষয়গুলো যাচাই করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



সাতদিনের সেরা