kalerkantho

শুক্রবার । ২০ ফাল্গুন ১৪২৭। ৫ মার্চ ২০২১। ২০ রজব ১৪৪২

চৌগাছায় সাংবাদিক সেজে সন্ত্রাসী হামলা, প্রেস লেখা মোটরসাইকেলসহ চাকু উদ্ধার

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি    

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৪:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চৌগাছায় সাংবাদিক সেজে সন্ত্রাসী হামলা, প্রেস লেখা মোটরসাইকেলসহ চাকু উদ্ধার

যশোরের চৌগাছায় সাংবাদিক পরিচয় ব্যবহার করে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এই হামলায় মফিজুর নামের এক ব্যক্তি আহত হয়েছেন। হামলার সময় এলাকাবাসী ধাওয়া করলে সন্ত্রাসীরা প্রেস লেখা মোটরসাইকেল ও একটি চাকু ফেলে পালিয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। 

একাধিক সূত্র জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার বিকালে চৌগাছা বাজারে পাঁচনামনা গ্রামের পিকআপচালক মফিজুর রহমানের সাথে পিতাম্বরপুর গ্রামের পিকআপচালক সেলিমের কথাকাটাকাটি হয়। এই ঘটনা স্থানীয়রা মীমাংসা করে দেন। কিন্তু ঘটনার সূত্র ধরে এ দিন রাত সাড়ে ৭টার দিকে সেলিমের ভাই একাধিক মামলার আসামি, সাংবাদিক নামধারী মামুনের নেতৃত্বে গরীবপুর গ্রামের সাংবাদিক নামধারী রায়হান, পিতাম্বরপুর গ্রামের সহোরাব, আমিনুর, আশিকুলসহ ১০-১২ জন সন্ত্রাসী ধারাল অস্ত্র নিয়ে মোটরসাইকেলে চেপে উপজেলা পরিষদ এলাকায়  যায়। এ সময় তারা পিকআপচালক মফিজকে খুঁজতে থাকে। একপর্যায়ে তাকে পেয়ে তার ওপর হামলা চালায়। হামলায় মারাত্মক আহত হয়েছেন মফিজ। এই অবস্থায় স্থানীয়রা সন্ত্রাসীদের ধাওয়া করেন। এলাকাবাসী চলে আসলে সন্ত্রাসীরা প্রেস লেখা মোটরসাইকেল ও একটি চাকু ফেলে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে মোটরসাইকেল ও চাকুটি উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়রা জানান, চাকু ও মোটরসাইকেলটি ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দের কাছে হেফাজতে আছে। 

একাধিক সূত্র জানিয়েছে, এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী হলেও মামুন ও রাইহান যশোর থেকে আগত এক সন্ত্রাসীর নেতৃত্বে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে নানা অপরাধ চালিয়ে যাচ্ছে। সূত্র আরো নিশ্চিত করেছে, উদ্ধার করা মোটরসাইকেলটি ছিনতাই করা। যার কোনো রেজিস্ট্রেশন নেই। 

হামলায় আহত মফিজুর রহমান জানান, যারা হামলা চালিয়েছে তারা সকলে চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও সাংবাদিক পরিচয়দানকারী। তাদের কাছে থাকা মোটরসাইকেলে প্রেস লেখা ছিল। 

এ বিষয়ে নবনির্বাচিত কাউন্সিলর সিদ্দিকুর রহমান জানান, ঘটনাস্থলের পাশে আমার বাসা। অসুস্থ থাকার কারণে আমি তখন শুয়ে ছিলাম। পরে শুনলাম হামলার ঘটনা ঘটেছে। এটা দুঃখজনক। যা কারো কাম্য নয়। 

এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) গোলাম কিবরিয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ধরনের ঘটনা আমাদের জানা নেই। এখনো পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেননি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা