kalerkantho

রবিবার। ২২ ফাল্গুন ১৪২৭। ৭ মার্চ ২০২১। ২২ রজব ১৪৪২

সন্তানের পিতৃপরিচয় চাইতে গিয়ে নির্যাতনের শিকার সোনিয়া!

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সন্তানের পিতৃপরিচয় চাইতে গিয়ে নির্যাতনের শিকার সোনিয়া!

কুড়িগ্রামের রাজীবপুরে সন্তানের পিতার পরিচয় চাইতে গিয়ে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন সোনিয়া খাতুন নামের এক অসহায় মা ও তার শিশু সন্তান। এ সময় ৬ মাস বয়সী পুত্র সন্তানকে মেরে ফেলার চেষ্টাও করা হয়। এ অবস্থায় গ্রামবাসী শিশু সন্তান ও মাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে উপজেলার বড়াইডাঙ্গি গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে।

অভিযোগে জানা গেছে, ওই অমানবিক ঘটনাটি ঘটান রাজীবপুর সদর ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সভাপতি সিরাজদ্দৌলা। এ সময়ে তার পরিবারের লোকজন মিলে নির্যাতিত মেয়েটি ও কোলের সন্তানকে মারপিট করে। ঘটনার সময় সোনিয়া খাতুনের অন্ধ মা রেজিয়া খাতুন এগিয়ে গেলে তাকেও মারপিট করা হয়। আহত হয়ে তারা এখন রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

জানা গেছে, বছর দুয়েক আগে ওই আ’লীগ নেতার বাড়িতে কাজের মেয়ে হিসেবে কাজ করার সময় সোনিয়া খাতুন (১৮) নামের নির্যাতিত মেয়েকে বিয়ের কথা বলে ধর্ষণ করে। একপর্যায় মেয়েটির অন্তঃসত্ত্বার বিষয়টি ফাঁস হয়ে গেলে তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়। ছয় মাস আগে মেয়েটির কোলে ফুটফুটে পুত্র সন্তান জন্ম নিলে পিতৃত্বের পরিচয়ের দাবিতে ওই আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি এখন বিচারাধীন রয়েছে।

নির্যাতিত সোনিয়া খাতুনের বাবা অনেক আগেই মারা গেছেন। মা চোখে দেখতে পারেন না। ওই নারী অভিযোগ করে বলেন, ‘আমি তাগরে ঘরে কাপড়কাচা, ঘর মোছা ও থালাবাসন মাচাসহ সংসারের যাবতীয় কাজ করছি। ভাই (অভিযুক্ত সিরাজদ্দৌলা) তাগরে ঘরে জোর কইরা, মুখ চাপাইয়া ধইরা আমার ইজ্জত নিছে। এভাবে আরো মেলা (অনেক) দিন আমাকে নিয়া বিছানায় থাকছে। আমাকে কইছে তোকে বিয়া করমু। এখন তিনি অস্বীকার করছেন। আমাকে ও সন্তানকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। আমরা গরীব মানুষ।’ 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা