kalerkantho

রবিবার। ২৮ চৈত্র ১৪২৭। ১১ এপ্রিল ২০২১। ২৭ শাবান ১৪৪২

আমার বাচ্চাডারে বাঁচাইন : অসুস্থ আলিফের বাবার আকুতি

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমার বাচ্চাডারে বাঁচাইন : অসুস্থ আলিফের বাবার আকুতি

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান আলিফ (৬) অন্য শিশুদের মতোই বেড়ে উঠতে চায়। কিন্তু সে স্বাভাবিক জীবন নিয়ে বেড়ে উঠতে পারছে না। নেফ্রোটিক সিনন্ড্রোম নামক জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ায় শরীর, মুখ অস্বাভাবিক ভাবে ফুলে আলিফের চোখ দুটিও বন্ধ হয়ে যায়। তবে প্রতিদিন অন্তত ৫০০ টাকার ওষুধ খেলে আলিফের শরীর ঠিক থাকে। ছোট শরীর নিয়ে আলিফ তখন হাসতে পারে, কাঁদতে পারে, অন্য শিশুদের মতোই দৌড়-ঝাপ ও খেলতে পারে। কিন্তু তার বাবার পক্ষে প্রতিদিন ৫০০ টাকা খরচ করা অনেক সময় সম্ভব হয় না। তখন প্রস্রাব বন্ধ হয়ে আলিফের শরীর অস্বাভাবিকভাবে ফুলতে থাকে। আলিফ উপজেলার মাইজহাটি গ্রামের ইলেক্ট্রিশিয়ান মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

জানা যায়, ২০১৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারি আলিফের জন্ম। ২০১৮ সালের দিকে হঠাৎ আলিফের শরীর ফুলতে থাকে। প্রথমে বাবা মা আলিফের স্বাস্থ্য বেড়েছে মনে করেন। কিন্তু পরে অস্বাভাবিকভাবে পেট ফুলে যায় এবং মুখ ফুলে দুই চোখ বন্ধ হয়ে যায়। পরে মোহাম্মদ আলী চিকিৎসা করাতে আলিফকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে ১১ দিন রেখে পরীক্ষা করে আলিফের নেফ্রোটিক সিনন্ড্রোম রোগ ধরা পড়ে। এ অবস্থায় মোহাম্মদ আলী ধামাইল গ্রামে ২৪ শতাংশ ও মাইজহাটি গ্রামে ২৮ শতাংশ জমি বিক্রিসহ প্রায় ১৩ লাখ টাকা চিকিৎসার পেছনে খরচ করেও আলিফকে সুস্থ করতে পারেননি। বর্তমানে ঢাকা শের-ই-বাংলা নগর জাতীয় কিডনি হাসপাতালে আলিফের চিকিৎসা চলছে। তবে চিকিৎসক বলেছেন দীর্ঘ দিনের ধারাবাহিক চিকিৎসায় এই রোগ ভালো হওয়ার সম্ভাবনা আছে। ১৮ বছর বয়স পর্যন্ত লাগতে পারে। কিন্তু প্রতিদিন ওষুধ খেতে হবে। এ অবস্থায় দরিদ্র মোহাম্মদ আলীর পক্ষে ছেলের চিকিৎসা ব্যয় বহন করা কঠিন হয়ে পড়েছে। তাই তিনি নিরুপায় হয়ে ছেলের চিকিৎসার জন্য সমাজের হৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যের আবেদন করেছেন। সাহায্য পাঠাবার বিকাশ নম্বর-০১৬৪২৪৪৮২১৯ (মোহাম্মদ আলী)।

সাহায্যের আবেদন জানিয়ে মোহাম্মদ আলী বলেন, আমহেরা আমার বাচ্চাডারে (আলিফ) বাঁচাইন। আমি ইলেকট্রিকের কাজ কইরা ৫০০-৬০০ টেহা কইরা কামাই করি। কিন্তু পত্যিদিন (প্রতিদিন) বাচ্চার ওষুধ কিনতে ৪২৫ টেহা লাগে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা